ঢাকা ০৫:১১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে শিক্ষাবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে – শিক্ষামন্ত্রী

স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে শিক্ষাবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী।
বুধবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) বিকালে রাজশাহী মহিলা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে অনুষ্ঠিত রাজশাহী বিভাগের আওতাধীন কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণের সঙ্গে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ শীর্ষক একটি মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ মন্তব্য করেন।
মন্ত্রী দেশের শিক্ষানগরী হিসেবে সুপরিচিত রাজশাহী শিক্ষানগরীকে আধুনিক,স্মার্ট ও কর্মবান্ধব নগরী হিসেবে এগিয়ে নেওয়ার তাগিদ দেন।মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের শিক্ষাখাত অনেক প্রতিবন্ধকতার মধ্য দিয়ে গেছে। বর্তমানে নতুন কারিকুলাম প্রণয়নের মাধ্যমে নতুন শিক্ষাক্রম চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শিতায় আজকে শিক্ষাখাত উন্নতির চরম শিখরে পৌঁছতে পেরেছে।
শিক্ষার্থীদের কীভাবে কর্মমুখী করে তোলা যায় তা এখন আমাদের ভাবতে হবে উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষকদের উদ্দেশে বলেন, কর্মমুখী ও দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি এখন সময়ের দাবি। শিক্ষিত ও ভালো ফলাফল করলেই ভালো চাকরি বা ডেস্ক জব হবে এ ধারণা থেকে আমাদের বের হয়ে আসতে হবে। কারিগরি শিক্ষা শুধু কারিগরি ছাত্রদের নয়, সাধারণ ছাত্র এমন-কি মাদ্রাসার ছাত্ররাও যেন এ বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করতে পারে সেদিকে খেয়াল রাখার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
তিনি আরও বলেন, বর্তমানে বিএমটিটিআই’তে বিভিন্ন ধরনের ভাষা শিক্ষার ব্যবস্থা রয়েছে। জাপানি, কোরিয়ান, আরবি ও ইংরেজি ভাষা শিখে দেশের বাইরেও অনেক কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করাযেতে পারে। এতে করে একদিকে যেমন আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে, অন্যদিকে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নেও গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করা যাবে। বর্তমান বিশ্ব কর্মবাজারে শুধু ভালো ফলাফলের সনদ দেখেই চাকরি পাওয়া যায় না, বরং কর্মদক্ষতা ও চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার ক্ষমতার ওপর চাকরির বাজার বিস্তৃত হয়।
সভায় মন্ত্রী শিক্ষকদের বিভিন্ন সমস্যার কথা মনোযোগ দিয়ে শুনেন এবং তা পর্যায়ক্রমে সমাধানের আশ্বাস দেন।
অনুষ্ঠানে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ সচিব ড. ফরিদ উদ্দিন আহমেদ সভাপতিত্ব করেন। এছাড়াও রাজশাহী বিভাগের আওতাধীন বিভিন্ন কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে – ডেপুটি স্পীকার

স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে শিক্ষাবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে – শিক্ষামন্ত্রী

আপডেট সময় ০৮:১২:৫৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে শিক্ষাবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী।
বুধবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) বিকালে রাজশাহী মহিলা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে অনুষ্ঠিত রাজশাহী বিভাগের আওতাধীন কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণের সঙ্গে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ শীর্ষক একটি মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ মন্তব্য করেন।
মন্ত্রী দেশের শিক্ষানগরী হিসেবে সুপরিচিত রাজশাহী শিক্ষানগরীকে আধুনিক,স্মার্ট ও কর্মবান্ধব নগরী হিসেবে এগিয়ে নেওয়ার তাগিদ দেন।মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের শিক্ষাখাত অনেক প্রতিবন্ধকতার মধ্য দিয়ে গেছে। বর্তমানে নতুন কারিকুলাম প্রণয়নের মাধ্যমে নতুন শিক্ষাক্রম চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শিতায় আজকে শিক্ষাখাত উন্নতির চরম শিখরে পৌঁছতে পেরেছে।
শিক্ষার্থীদের কীভাবে কর্মমুখী করে তোলা যায় তা এখন আমাদের ভাবতে হবে উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষকদের উদ্দেশে বলেন, কর্মমুখী ও দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি এখন সময়ের দাবি। শিক্ষিত ও ভালো ফলাফল করলেই ভালো চাকরি বা ডেস্ক জব হবে এ ধারণা থেকে আমাদের বের হয়ে আসতে হবে। কারিগরি শিক্ষা শুধু কারিগরি ছাত্রদের নয়, সাধারণ ছাত্র এমন-কি মাদ্রাসার ছাত্ররাও যেন এ বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করতে পারে সেদিকে খেয়াল রাখার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
তিনি আরও বলেন, বর্তমানে বিএমটিটিআই’তে বিভিন্ন ধরনের ভাষা শিক্ষার ব্যবস্থা রয়েছে। জাপানি, কোরিয়ান, আরবি ও ইংরেজি ভাষা শিখে দেশের বাইরেও অনেক কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করাযেতে পারে। এতে করে একদিকে যেমন আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে, অন্যদিকে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নেও গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করা যাবে। বর্তমান বিশ্ব কর্মবাজারে শুধু ভালো ফলাফলের সনদ দেখেই চাকরি পাওয়া যায় না, বরং কর্মদক্ষতা ও চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার ক্ষমতার ওপর চাকরির বাজার বিস্তৃত হয়।
সভায় মন্ত্রী শিক্ষকদের বিভিন্ন সমস্যার কথা মনোযোগ দিয়ে শুনেন এবং তা পর্যায়ক্রমে সমাধানের আশ্বাস দেন।
অনুষ্ঠানে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ সচিব ড. ফরিদ উদ্দিন আহমেদ সভাপতিত্ব করেন। এছাড়াও রাজশাহী বিভাগের আওতাধীন বিভিন্ন কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।