ঢাকা ০৯:৫৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাংবাদিক পুণ্য বর্ধন বড়ুয়া’কে হামলার মামলায় প্রধান আসামি মোবাইল ছিনতাইকারী অরুন বড়ুয়া আটক

News21bangla’tv (নিবন্ধিত IP) এবং দৈনিক আপন কন্ঠ স্টাফ রিপোর্টার পুণ্য বর্ধণ বড়ুয়া মোবাইল ছিনতাই ও সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয় গত ১৫ মে ২৩ ইং।

এঘটনায় গত ১৫ মে, ১০ জনের বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে যার নং৩২/২৬০। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রফিকুল ইসলাম।

হামলার সময়ে নিয়ে ফেলা মোবাইল মামলার প্রধান আসামি মোবাইল চোর অরুন বড়ুয়া হতে গত ১৬মে ২৩ ইং তারিখ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শহর পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ মোঃ মহিউল ইসলাম মোবাইলটি উদ্ধার করে।
চোর অরুণ কক্সবাজার পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড পূর্ব বড়ুয়া গ্রামের হেমন্দ্র বড়ুয়ার বড় ছেলে।

মামলার অন্যান্য আসামিরা হলেন একই এলাকার ওলেন্দ্র বড়ুয়ার ছেলে যতন বড়ুয়া (৪২), সুবদত্ত বড়ুয়ার ছেলে উজ্জ্বল বড়ুয়া (২২), কমল বড়ুয়ার ছেলে নিরব বড়ুয়া (১৮), ও নিশান বড়ুয়া (২০) পলাতক রয়েছে। অপরাপর আসামী সুবদত্ত বড়ুয়ার ছেলে লকাশ বড়ুয়া (২৬), সুধীর বড়ুয়ার ছেলে মান্না বড়ুয়া (২৭), সুমন্ত বড়ুয়ার ছেলে প্রণক বড়ুয়া রনি (২৬), মৃত সুদর্শন বড়ুয়ার ছেলে গার্ডেন বড়ুয়া (১৯), পশ্চিম বড়ুয়া পাড়ার কুসুমোহন বডুয়ার ছেলে প্রনেশ বড়ুয়া (২৮)অজ্ঞাতামাসহ ১৫/২০জনের একটি কিশোর গ্যাং এ ঘটনার সাথে জড়িত রয়েছে।

গত ১ মে বিকাল ৫টার দিকে কক্সবাজার পৌরসভা ৬নং ওয়ার্ডের পূর্ব বড়ুয়া পাড়াস্থ কেন্দ্রীয় ধর্মঙ্কুর বৌদ্ধবিহার এলাকায় সাংবাদিক পুণ্য বর্ধনের উপর সশস্ত্র হামলার ঘটনা ঘটে। এতে তিনি গুরুতর আহত হন, এসময় সন্ত্রাসীরা ছিনিয়ে নেয় ব্যবহারের মোবাইল ও নগদ টাকা। পুলিশ ও স্থানীয়রা পুণ্য বর্ধন বড়ুয়াকে আহত অবস্থায় ঘটনাস্হল হতে উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্হা করেন।

মামলার প্রধান আসামি মোবাইল চোর অরুন বড়ুয়াকে আজ বিকাল ৫ ঘটিকার সময় রামু চৌমহনি ষ্টেশন চত্বর হতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আইসি মোঃ মহিউল ইসলাম গ্রেপ্তার করে।

মামলার বাদী পুণ্য বর্ধণ বড়ুয়া ঘটনার দিন এলাকার মন্দির নিয়ে আসামীদের সাথে মন্দির কমিঠির সভাপতি/ সম্পাদক স্বপন বড়ুয়া ও বিধান বড়ুয়াদের সৃষ্ট ঘটনা শুনছিলেন, এ সময় পুর্ব পরিকল্পিত তর্কিতভাবে তাঁর উপর হামলা করে চিহ্নিত অপরাধীরা। প্রাণ রক্ষার্থে সে মন্দিরে ঢুকে গেলে হামলাকারীরা মন্দিরের পবিত্রতা নষ্ট করে সেখানে ঢুকে পড়ে এবং এলোপাতাড়ি মারধর করে। সৃষ্টিকর্তার অশেষ রহমত ও স্থানীয়দের আন্তরিক সহযোগিতায় প্রাণে রক্ষা পায়। অতপর পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে হামলাকারীরা ঘটনাস্হল হতে সটকে পড়ে।

প্রধান আসামি অরুন ও যতন বড়ুয়া অত্র এলাকার কিশোর গ্যাং লিডার। তাদের বিরুদ্ধে জিআর ৪০৯/২০১১, ৩৭১/২০১৯ সহ ডাকাতি, খুন, ছিনতাই ও নানান অভিযোগ মামলা রয়েছে বলে এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে। আইনশৃঙ্খলার স্বার্থে অপরাপর আসামীদপর গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি এলাকাবাসীর।

আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

রাজশাহীতে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ শীর্ষক আলোচনা সভা

সাংবাদিক পুণ্য বর্ধন বড়ুয়া’কে হামলার মামলায় প্রধান আসামি মোবাইল ছিনতাইকারী অরুন বড়ুয়া আটক

আপডেট সময় ০৪:৫৫:২৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৯ মে ২০২৩

News21bangla’tv (নিবন্ধিত IP) এবং দৈনিক আপন কন্ঠ স্টাফ রিপোর্টার পুণ্য বর্ধণ বড়ুয়া মোবাইল ছিনতাই ও সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয় গত ১৫ মে ২৩ ইং।

এঘটনায় গত ১৫ মে, ১০ জনের বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে যার নং৩২/২৬০। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রফিকুল ইসলাম।

হামলার সময়ে নিয়ে ফেলা মোবাইল মামলার প্রধান আসামি মোবাইল চোর অরুন বড়ুয়া হতে গত ১৬মে ২৩ ইং তারিখ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শহর পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ মোঃ মহিউল ইসলাম মোবাইলটি উদ্ধার করে।
চোর অরুণ কক্সবাজার পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড পূর্ব বড়ুয়া গ্রামের হেমন্দ্র বড়ুয়ার বড় ছেলে।

মামলার অন্যান্য আসামিরা হলেন একই এলাকার ওলেন্দ্র বড়ুয়ার ছেলে যতন বড়ুয়া (৪২), সুবদত্ত বড়ুয়ার ছেলে উজ্জ্বল বড়ুয়া (২২), কমল বড়ুয়ার ছেলে নিরব বড়ুয়া (১৮), ও নিশান বড়ুয়া (২০) পলাতক রয়েছে। অপরাপর আসামী সুবদত্ত বড়ুয়ার ছেলে লকাশ বড়ুয়া (২৬), সুধীর বড়ুয়ার ছেলে মান্না বড়ুয়া (২৭), সুমন্ত বড়ুয়ার ছেলে প্রণক বড়ুয়া রনি (২৬), মৃত সুদর্শন বড়ুয়ার ছেলে গার্ডেন বড়ুয়া (১৯), পশ্চিম বড়ুয়া পাড়ার কুসুমোহন বডুয়ার ছেলে প্রনেশ বড়ুয়া (২৮)অজ্ঞাতামাসহ ১৫/২০জনের একটি কিশোর গ্যাং এ ঘটনার সাথে জড়িত রয়েছে।

গত ১ মে বিকাল ৫টার দিকে কক্সবাজার পৌরসভা ৬নং ওয়ার্ডের পূর্ব বড়ুয়া পাড়াস্থ কেন্দ্রীয় ধর্মঙ্কুর বৌদ্ধবিহার এলাকায় সাংবাদিক পুণ্য বর্ধনের উপর সশস্ত্র হামলার ঘটনা ঘটে। এতে তিনি গুরুতর আহত হন, এসময় সন্ত্রাসীরা ছিনিয়ে নেয় ব্যবহারের মোবাইল ও নগদ টাকা। পুলিশ ও স্থানীয়রা পুণ্য বর্ধন বড়ুয়াকে আহত অবস্থায় ঘটনাস্হল হতে উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্হা করেন।

মামলার প্রধান আসামি মোবাইল চোর অরুন বড়ুয়াকে আজ বিকাল ৫ ঘটিকার সময় রামু চৌমহনি ষ্টেশন চত্বর হতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আইসি মোঃ মহিউল ইসলাম গ্রেপ্তার করে।

মামলার বাদী পুণ্য বর্ধণ বড়ুয়া ঘটনার দিন এলাকার মন্দির নিয়ে আসামীদের সাথে মন্দির কমিঠির সভাপতি/ সম্পাদক স্বপন বড়ুয়া ও বিধান বড়ুয়াদের সৃষ্ট ঘটনা শুনছিলেন, এ সময় পুর্ব পরিকল্পিত তর্কিতভাবে তাঁর উপর হামলা করে চিহ্নিত অপরাধীরা। প্রাণ রক্ষার্থে সে মন্দিরে ঢুকে গেলে হামলাকারীরা মন্দিরের পবিত্রতা নষ্ট করে সেখানে ঢুকে পড়ে এবং এলোপাতাড়ি মারধর করে। সৃষ্টিকর্তার অশেষ রহমত ও স্থানীয়দের আন্তরিক সহযোগিতায় প্রাণে রক্ষা পায়। অতপর পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে হামলাকারীরা ঘটনাস্হল হতে সটকে পড়ে।

প্রধান আসামি অরুন ও যতন বড়ুয়া অত্র এলাকার কিশোর গ্যাং লিডার। তাদের বিরুদ্ধে জিআর ৪০৯/২০১১, ৩৭১/২০১৯ সহ ডাকাতি, খুন, ছিনতাই ও নানান অভিযোগ মামলা রয়েছে বলে এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে। আইনশৃঙ্খলার স্বার্থে অপরাপর আসামীদপর গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি এলাকাবাসীর।