ঢাকা ০৯:৫৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
পাচনতন্ত্রের সমস্যা সমাধানে জনপ্রিয় ইসবগুলের ভুষি

শরীরের ভেতরে পাচনতন্ত্রের সমস্যা সমাধানে ইসবগুলের ভুসি জনপ্রিয়।

লাইফস্টাইল ডেস্ক

পাচনতন্ত্রের সমস্যা সমাধানে জনপ্রিয় ইসবগুলের ভুষি । গবেষণা বলছে প্রবাইডেক হিসেবে এটি কাজ করে । এতে নিয়ন্ত্রণে রাখে  অ্যাসিডিটি, ও পেটের সমস্যা দূর করার পাশাপাশি ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখে। খাবারের তালিকায়  এক গ্লাস পানিতে ইসবগুল ভেজানো পানি খাওয়ার পরামর্শ পুষ্টি বিজ্ঞানীদের।  প্রবাইডেক খাবার  হিসেবে জনপ্রিয়তার শীর্ষে আছে ইসুবগুলের ভুষি । শরীরের ভেতরে পাচনতন্ত্রের সমস্যায় ব্যবহার হচ্ছে প্রতিনিয়ত । এক গবেষণায় পাওয়া যায় কার্যকরী উপাদান হিসেবে ডায়াবেটিস, নিয়ন্ত্রণে  উপকারী ভূমিকা সহ সোডিয়াম, কার্বনেট, ক্যালসিয়াম, ও আয়রন নিয়ন্ত্রণ রাখে ।  পুষ্টি বিজ্ঞানীদের পরামর্শ মতো ইসবগুলের ভুসি সারারাত পানিতে ভিজিয়ে না রেখে সঙ্গে সঙ্গে খাওয়ায় বেশি উপকারী।

  আমাদের প্রতিদিন  একটা মানুষের রিকমেন্ডেশন চেক করার জন্য
১০ থেকে ২৫ গ্রামের মধ্য দিয়ে   ২২৫ থেকে ২৫০ গ্রাম  পানির সাথে মিক্স করে আমরা খেতে পারি ।  এটা দেখা যাচ্ছে যাদের কোলেস্টেরল বেশি আছে তাদের কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করছে । যাদের ডাইরিয়া হচ্ছে তাদের জন্য  ভালো ফল পাওয়া যায়। পুষ্টি বিজ্ঞান এর পরামর্শ মতো
পাচনতন্ত্রে একটি আবরণ বা স্তর সৃষ্টি হয়, স্তর সৃষ্টির ফলে সৃষ্ট শোষণে বাধা দেয় এবং এর মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে ।  তাছাড়া ইসবগুলের ভুষিতে  এমন একটি উপাদান থাকে যা গ্লুকোজ এবং শোষণে বাধা দেয়। ইসবগুলের ভুসি নিয়মিত সেবন করলে হজম শক্তি বৃদ্ধি পায়।তাই দৈনন্দিন খাবার তালিকার পাশাপাশি ইসবগুলের ভুসি নিয়মিত সেবন করা দরকার।

রাজশাহীতে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ শীর্ষক আলোচনা সভা

পাচনতন্ত্রের সমস্যা সমাধানে জনপ্রিয় ইসবগুলের ভুষি

শরীরের ভেতরে পাচনতন্ত্রের সমস্যা সমাধানে ইসবগুলের ভুসি জনপ্রিয়।

আপডেট সময় ০১:৪৯:২৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১০ এপ্রিল ২০২২

পাচনতন্ত্রের সমস্যা সমাধানে জনপ্রিয় ইসবগুলের ভুষি । গবেষণা বলছে প্রবাইডেক হিসেবে এটি কাজ করে । এতে নিয়ন্ত্রণে রাখে  অ্যাসিডিটি, ও পেটের সমস্যা দূর করার পাশাপাশি ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখে। খাবারের তালিকায়  এক গ্লাস পানিতে ইসবগুল ভেজানো পানি খাওয়ার পরামর্শ পুষ্টি বিজ্ঞানীদের।  প্রবাইডেক খাবার  হিসেবে জনপ্রিয়তার শীর্ষে আছে ইসুবগুলের ভুষি । শরীরের ভেতরে পাচনতন্ত্রের সমস্যায় ব্যবহার হচ্ছে প্রতিনিয়ত । এক গবেষণায় পাওয়া যায় কার্যকরী উপাদান হিসেবে ডায়াবেটিস, নিয়ন্ত্রণে  উপকারী ভূমিকা সহ সোডিয়াম, কার্বনেট, ক্যালসিয়াম, ও আয়রন নিয়ন্ত্রণ রাখে ।  পুষ্টি বিজ্ঞানীদের পরামর্শ মতো ইসবগুলের ভুসি সারারাত পানিতে ভিজিয়ে না রেখে সঙ্গে সঙ্গে খাওয়ায় বেশি উপকারী।

  আমাদের প্রতিদিন  একটা মানুষের রিকমেন্ডেশন চেক করার জন্য
১০ থেকে ২৫ গ্রামের মধ্য দিয়ে   ২২৫ থেকে ২৫০ গ্রাম  পানির সাথে মিক্স করে আমরা খেতে পারি ।  এটা দেখা যাচ্ছে যাদের কোলেস্টেরল বেশি আছে তাদের কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করছে । যাদের ডাইরিয়া হচ্ছে তাদের জন্য  ভালো ফল পাওয়া যায়। পুষ্টি বিজ্ঞান এর পরামর্শ মতো
পাচনতন্ত্রে একটি আবরণ বা স্তর সৃষ্টি হয়, স্তর সৃষ্টির ফলে সৃষ্ট শোষণে বাধা দেয় এবং এর মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে ।  তাছাড়া ইসবগুলের ভুষিতে  এমন একটি উপাদান থাকে যা গ্লুকোজ এবং শোষণে বাধা দেয়। ইসবগুলের ভুসি নিয়মিত সেবন করলে হজম শক্তি বৃদ্ধি পায়।তাই দৈনন্দিন খাবার তালিকার পাশাপাশি ইসবগুলের ভুসি নিয়মিত সেবন করা দরকার।