ঢাকা ০৭:১৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্প্রসারণে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে ঃ লিটন

রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির সাথে মেয়র প্রার্থী  খায়রুজ্জামান লিটনের মতবিনিময়

রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির সাথে মেয়র প্রার্থী খায়রুজ্জামান লিটনের মতবিনিময়

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত ও ১৪ দল সমর্থিত মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, রাজশাহী শিক্ষাবান্ধব শহর, স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে এগিয়ে আছে, তবে ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে রাজশাহী উপেক্ষিত, অবহেলিত বলা যায়। রাজশাহীতে প্রচুর পরিমান কৃষিজাত পণ্য উৎপাদন হয়, প্রচুর পরিমানে মাছ চাষ হয়, পোল্ট্রি আছে, ডেইরি আছে। রাজশাহী কৃষিপ্রধান অঞ্চল হওয়ার কারণে এখানে সেভাবে শিল্প-কারখানা গড়ে উঠেনি। এবার আমি নির্বাচিত হলে রাজশাহীর ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্প্রসারণ ও কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করবো।

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন উপলক্ষ্যে বুধবার দুপুরে রাজশাহী চেম্বার ভবন সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ রেস্তোরাঁ মালিক সমিতি, রাজশাহী জেলা শাখার নেতৃবৃন্দের সাথে এক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

সভায় রাসিকের সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহীতে বিসিক শিল্পনগরী-২ এর নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। এটি প্লট বরাদ্দের অপেক্ষায় রয়েছে। চামড়া শিল্প প্রতিষ্ঠারও কাজ চলছে। আগামীতে রাজশাহীতে গার্মেন্টস কারখানা করতে চাই। রাজশাহীর ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণে সবার সহযোগিতা প্রয়োজন। আমি সুযোগ পেলে সবার সহযোগিতা নিয়ে ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণ ও রাজশাহীর অর্থনীতিকে গতিশীল করতে কাজ করবো।

মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বিএমডিএ’র চেয়ারম্যান বেগম আখতার জাহান,  বাংলাদেশ রেস্তোরাঁ মালিক সমিতি, রাজশাহী জেলা শাখার সভাপতি রিয়াজ আহমেদ খান, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি ও রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান রিংকু, লবঙ্গ চাইনিজ রেস্তোরাঁর স্বত্বাধিকারী আজিজুল আলম বেন্টু, নানকিং চাইনিজ রেস্তোঁরার সত্ত্বাধিকারী এহসানুল হক দুুলু।

সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহসানুল হক পিন্টু, শ্রম সম্পাদক আব্দুস সোহেল, সদস্য মোখলেসুর রহমান কচিসহ ৪৬টি রেস্তোরাঁর স্বত্ত্বাধিকারী।

আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে – ডেপুটি স্পীকার

ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্প্রসারণে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে ঃ লিটন

রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির সাথে মেয়র প্রার্থী  খায়রুজ্জামান লিটনের মতবিনিময়

আপডেট সময় ০৫:৪০:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ জুন ২০২৩
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত ও ১৪ দল সমর্থিত মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, রাজশাহী শিক্ষাবান্ধব শহর, স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে এগিয়ে আছে, তবে ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে রাজশাহী উপেক্ষিত, অবহেলিত বলা যায়। রাজশাহীতে প্রচুর পরিমান কৃষিজাত পণ্য উৎপাদন হয়, প্রচুর পরিমানে মাছ চাষ হয়, পোল্ট্রি আছে, ডেইরি আছে। রাজশাহী কৃষিপ্রধান অঞ্চল হওয়ার কারণে এখানে সেভাবে শিল্প-কারখানা গড়ে উঠেনি। এবার আমি নির্বাচিত হলে রাজশাহীর ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্প্রসারণ ও কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করবো।

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন উপলক্ষ্যে বুধবার দুপুরে রাজশাহী চেম্বার ভবন সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ রেস্তোরাঁ মালিক সমিতি, রাজশাহী জেলা শাখার নেতৃবৃন্দের সাথে এক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

সভায় রাসিকের সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহীতে বিসিক শিল্পনগরী-২ এর নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। এটি প্লট বরাদ্দের অপেক্ষায় রয়েছে। চামড়া শিল্প প্রতিষ্ঠারও কাজ চলছে। আগামীতে রাজশাহীতে গার্মেন্টস কারখানা করতে চাই। রাজশাহীর ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণে সবার সহযোগিতা প্রয়োজন। আমি সুযোগ পেলে সবার সহযোগিতা নিয়ে ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণ ও রাজশাহীর অর্থনীতিকে গতিশীল করতে কাজ করবো।

মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বিএমডিএ’র চেয়ারম্যান বেগম আখতার জাহান,  বাংলাদেশ রেস্তোরাঁ মালিক সমিতি, রাজশাহী জেলা শাখার সভাপতি রিয়াজ আহমেদ খান, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি ও রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান রিংকু, লবঙ্গ চাইনিজ রেস্তোরাঁর স্বত্বাধিকারী আজিজুল আলম বেন্টু, নানকিং চাইনিজ রেস্তোঁরার সত্ত্বাধিকারী এহসানুল হক দুুলু।

সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহসানুল হক পিন্টু, শ্রম সম্পাদক আব্দুস সোহেল, সদস্য মোখলেসুর রহমান কচিসহ ৪৬টি রেস্তোরাঁর স্বত্ত্বাধিকারী।