ঢাকা ০১:৫১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রাজশাহীর পদ্মায় জেগে উঠা চর দখল নিয়ে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ২,আহত ৪

ফাইল ছবি।

রাজশাহীর বাঘার খানপুর বাজারের দক্ষিণে বাঘা ও দৌলতপুরে পদ্মা নদীর মাঝখানে হবির চরে পদ্মার বুকে কিছু জমি জেগে উঠেছে।
বাঘা ও কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে পদ্মা নদীতে জেগে উঠা নতুন চরটির দখল নিয়ে সংঘর্ষে দুজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।  ২১ অক্টোবর শনিবার দুপুরে বাঘা উপজেলার খানপুর বাজারের দক্ষিণে হবির চরে এই ঘটনা ঘটে।
গুলিবিদ্ধ দুজন হলেন, বাঘার ব্যাঙ্গাড়ি গ্রামের ইউনুস মণ্ডলের ছেলে সাবুল মণ্ডল (২৮) ও খেতু মণ্ডলের ছেলে ফেলু মণ্ডল (৫২)। এ ঘটনার জেরে প্রতিপক্ষের পিটুনিতে দুজন আহত হয়েছেন। আহত চারজনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
সংঘর্ষের খবর শুনে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন বাঘা থানার এসআই কামরুজ্জামান।ঐদিন  রাতে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, পদ্মা নদীতপ যে চর জেগেছে, সেটা দৌলতপুরের সীমানার মধ্যে। এর আগে সাবুল মণ্ডল সেই চরে চাষাবাদ করেছেন। এবার দৌলতপুরের লোকজন সেই চরের দখল নিতে এসেছিলেন। কয়েক দিন আগেও দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়েছে।চার দখল নিয়ে শনিবার দুপুরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে দুজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তবে এ ব্যাপারে কোনো পক্ষ থানায় কোনো অভিযোগ করেনি।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সাবুল মণ্ডল ওই জমি দখলে নিয়ে চাষাবাদ শুরু করেন। তবে ওই জমি নিজেদের দাবি করে লিখন হোসেন মণ্ডল ও আরিফ হোসেন মণ্ডল শনিবার দুপুরে মসুরের বীজ ছিটাতে আসেন। খবর পেয়ে সাবুল মণ্ডলও তাদের লোকজন নিয়ে যান। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়।
দৌলতপুর থেকে যারা এসেছিলেন, তারা বন্দুক নিয়ে এসেছিলেন। তারা গুলি ছুড়লে সাবুল হোসেন ও ফেলু মণ্ডল গুলিবিদ্ধ হন। তাদের উদ্ধার করে প্রথমে বাঘা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাঁদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।
পরে সাবুল মণ্ডল পক্ষের লোকজনের পিটুনিতে লিখন হোসেন ও আরিফ হোসেন আহত হন। তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় রাসিক মেয়র ‘বঙ্গবন্ধু ভাষা আন্দোলনের মাধ্যমে স্বাধীনতার বীজ বোপন করেছিলেন’

রাজশাহীর পদ্মায় জেগে উঠা চর দখল নিয়ে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ২,আহত ৪

আপডেট সময় ০২:২৫:১৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২২ অক্টোবর ২০২৩
রাজশাহীর বাঘার খানপুর বাজারের দক্ষিণে বাঘা ও দৌলতপুরে পদ্মা নদীর মাঝখানে হবির চরে পদ্মার বুকে কিছু জমি জেগে উঠেছে।
বাঘা ও কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে পদ্মা নদীতে জেগে উঠা নতুন চরটির দখল নিয়ে সংঘর্ষে দুজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।  ২১ অক্টোবর শনিবার দুপুরে বাঘা উপজেলার খানপুর বাজারের দক্ষিণে হবির চরে এই ঘটনা ঘটে।
গুলিবিদ্ধ দুজন হলেন, বাঘার ব্যাঙ্গাড়ি গ্রামের ইউনুস মণ্ডলের ছেলে সাবুল মণ্ডল (২৮) ও খেতু মণ্ডলের ছেলে ফেলু মণ্ডল (৫২)। এ ঘটনার জেরে প্রতিপক্ষের পিটুনিতে দুজন আহত হয়েছেন। আহত চারজনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
সংঘর্ষের খবর শুনে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন বাঘা থানার এসআই কামরুজ্জামান।ঐদিন  রাতে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, পদ্মা নদীতপ যে চর জেগেছে, সেটা দৌলতপুরের সীমানার মধ্যে। এর আগে সাবুল মণ্ডল সেই চরে চাষাবাদ করেছেন। এবার দৌলতপুরের লোকজন সেই চরের দখল নিতে এসেছিলেন। কয়েক দিন আগেও দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়েছে।চার দখল নিয়ে শনিবার দুপুরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে দুজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তবে এ ব্যাপারে কোনো পক্ষ থানায় কোনো অভিযোগ করেনি।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সাবুল মণ্ডল ওই জমি দখলে নিয়ে চাষাবাদ শুরু করেন। তবে ওই জমি নিজেদের দাবি করে লিখন হোসেন মণ্ডল ও আরিফ হোসেন মণ্ডল শনিবার দুপুরে মসুরের বীজ ছিটাতে আসেন। খবর পেয়ে সাবুল মণ্ডলও তাদের লোকজন নিয়ে যান। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়।
দৌলতপুর থেকে যারা এসেছিলেন, তারা বন্দুক নিয়ে এসেছিলেন। তারা গুলি ছুড়লে সাবুল হোসেন ও ফেলু মণ্ডল গুলিবিদ্ধ হন। তাদের উদ্ধার করে প্রথমে বাঘা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাঁদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।
পরে সাবুল মণ্ডল পক্ষের লোকজনের পিটুনিতে লিখন হোসেন ও আরিফ হোসেন আহত হন। তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।