ঢাকা ০৬:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রাজশাহীতে ট্রাফিক পুলিশকে লাথি মারার অপরাধে এক নারী আটক

পুলিশকে জনসম্মুখে  লাথ্যি মারার ঘটনায় এক নারীকে আটক

রাজশাহীতে ট্রাফিক পুলিশকে জনসম্মুখে  লাথ্যি মারার ঘটনায় এক নারীকে আটক করেছে রাজশাহী মহানগর পুলিশ।
১২ ডিসেম্বর মঙ্গলবার দুপুর সোয়া দুইটার দিকে নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানাধীন হোটেল রহমানিয়ার সামনে এ ঘটনা ঘটে।আটক ওই নারীর নাম রানী (৪৫)।
নগরীর বোয়ালিয়া থানার ওসি হুমায়ন কবির জানান, সেখানে ডিউটরত ট্রাফিক কনস্টেবল মোঃ বজলুর রহমান দায়িত্ব পালনকালী সময় বেরিগেড দিয়ে যানবাহন তল্লাশি করছিলেন। ঐ সময়  রিক্সার যাত্রী রানী, পুলিশের বেরিগেট অতিক্রম করে যেতে চাইলে ট্রাফিক পুলিশ কনস্টেবল বজলু তাকে বাধা দেন। এতে বিরক্ত হয়ে আটক কৃত ঐ নারী পুলিশ সদস্য বজলুর সঙ্গে তর্ক-বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে রিকশা থেকে নেমে  রিক্সার  যাত্রী রানি ট্রাফিক কনস্টেবলের  জামা ধরে (ইউনিফর্ম) স্পর্শ কাতর যায়গায় লাথি মারেন এবং শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে।
এসময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ট্রাফিক সার্জেন্ট সাবিহা খাতুন বোয়ালিয়া থানা পুলিশকে খবর দেন। বোয়ালিয়া থানা পুলিশ গিয়ে রিক্সার যাত্রী রানীকে আটক করে  থানায় নিয়ে যান।
পুলিশের বাধায় ও
পুলিশ হেফাজতে থাকায় ঐ নারীর বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

পায়রা বন্দর পরিদর্শন এবং বন্দর কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তাদের সাথে রাসিক মেয়রের মতবিনিময়

রাজশাহীতে ট্রাফিক পুলিশকে লাথি মারার অপরাধে এক নারী আটক

আপডেট সময় ০৭:৫৩:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ ডিসেম্বর ২০২৩
রাজশাহীতে ট্রাফিক পুলিশকে জনসম্মুখে  লাথ্যি মারার ঘটনায় এক নারীকে আটক করেছে রাজশাহী মহানগর পুলিশ।
১২ ডিসেম্বর মঙ্গলবার দুপুর সোয়া দুইটার দিকে নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানাধীন হোটেল রহমানিয়ার সামনে এ ঘটনা ঘটে।আটক ওই নারীর নাম রানী (৪৫)।
নগরীর বোয়ালিয়া থানার ওসি হুমায়ন কবির জানান, সেখানে ডিউটরত ট্রাফিক কনস্টেবল মোঃ বজলুর রহমান দায়িত্ব পালনকালী সময় বেরিগেড দিয়ে যানবাহন তল্লাশি করছিলেন। ঐ সময়  রিক্সার যাত্রী রানী, পুলিশের বেরিগেট অতিক্রম করে যেতে চাইলে ট্রাফিক পুলিশ কনস্টেবল বজলু তাকে বাধা দেন। এতে বিরক্ত হয়ে আটক কৃত ঐ নারী পুলিশ সদস্য বজলুর সঙ্গে তর্ক-বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে রিকশা থেকে নেমে  রিক্সার  যাত্রী রানি ট্রাফিক কনস্টেবলের  জামা ধরে (ইউনিফর্ম) স্পর্শ কাতর যায়গায় লাথি মারেন এবং শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে।
এসময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ট্রাফিক সার্জেন্ট সাবিহা খাতুন বোয়ালিয়া থানা পুলিশকে খবর দেন। বোয়ালিয়া থানা পুলিশ গিয়ে রিক্সার যাত্রী রানীকে আটক করে  থানায় নিয়ে যান।
পুলিশের বাধায় ও
পুলিশ হেফাজতে থাকায় ঐ নারীর বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।