ঢাকা ০৭:৪১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যৌন হয়রানির অভিযোগে রাবি চিকিৎসক সাময়িক বরখাস্ত

চিকিৎসক ডা. রাজু আহমেদকে সাময়িক বরখাস্ত

যৌন হয়রানির অভিযোগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) চিকিৎসা কেন্দ্রের উপ-প্রধান চিকিৎসক ডা. রাজু আহমেদকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। রোববার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক ড. প্রদীপ কুমার পাণ্ডে।

তিনি জানান, চিকিৎসক ডা. রাজুর বিরুদ্ধে আনিত যৌন হয়রানির অভিযোগ তদন্তের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ইতোমধ্যে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এছাড়াও অভিযোগ তদন্তের জন্য যৌন হয়রানি ও নিপীড়ন নিরোধ বিষয়ক অভিযোগ কমিটিকেও দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এর আগে গত ৩০ অক্টোবর রাতে রাজশাহী নগরীর তালাইমারি এলাকার আমেনা ক্লিনিকে এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সহযোগী অধ্যাপকের ১৩ বছর বয়সী মেয়েকে যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠে।

অভিযুক্ত চিকিৎসক ডা. রাজু আহমেদ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রের উপ-প্রধান চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত। চাকরির পাশাপাশি বেসরকারি ক্লিনিকে রোগীদের চিকিৎসা দেন তিনি।

এ ঘটনায় গত ৩১ অক্টোবর নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় ‘নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে’ একটি মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগীর মা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত রসায়ন ও রসায়ন প্রকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সাবিনা ইয়াসমিন।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, বাদী সোমবার (৩০ অক্টোবর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তালাইমারী আমেনা ক্লিনিকের নীচতলায় বিবাদীর চেম্বারে তার মেয়ের দাঁতের চিকিৎসা করানোর জন্য যান।

একপর্যায়ে তার মোবাইল ফোনে কল আসলে তিনি কথা বলার জন্য বিবাদীর চেম্বার থেকে বাইরে বের হন। এমতাবস্থায় বিবাদী তার মেয়ের দাঁতের চিকিৎসা করাকালে ডেন্টাল চেয়ারে শোয়া অবস্থায় মেয়েটির শরীরের আপত্তিকর বিভিন্ন স্থানে স্পর্শ করে।

এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়, মেয়েটি এতে বিব্রত বোধ করলে বিবাদী মেয়েটির কোনোরুপ কথা না শুনে মেয়েটির স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়। এতে মেয়েটি ভয়ে চিৎকার করে ওঠে।

চিৎকার শুনে বাদি ভেতরে প্রবেশ করলে তার মেয়েকে কান্নারত অবস্থায় পান এবং তিনি তার মেয়ের মুখে ঘটনার বিষয়ে বিস্তারিত শোনেন।

এছাড়া এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর আবেদন করেছেন। এছাড়া চিকিৎসক রাজুকে স্থায়ীভাবে চাকরিচ্যুতের দাবিতে দফায় দফায় মানববন্ধন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীসহ কয়েকটি সংগঠন।

আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

রাজশাহীতে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ শীর্ষক আলোচনা সভা

যৌন হয়রানির অভিযোগে রাবি চিকিৎসক সাময়িক বরখাস্ত

আপডেট সময় ০২:৪৯:১৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ নভেম্বর ২০২৩

যৌন হয়রানির অভিযোগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) চিকিৎসা কেন্দ্রের উপ-প্রধান চিকিৎসক ডা. রাজু আহমেদকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। রোববার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক ড. প্রদীপ কুমার পাণ্ডে।

তিনি জানান, চিকিৎসক ডা. রাজুর বিরুদ্ধে আনিত যৌন হয়রানির অভিযোগ তদন্তের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ইতোমধ্যে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এছাড়াও অভিযোগ তদন্তের জন্য যৌন হয়রানি ও নিপীড়ন নিরোধ বিষয়ক অভিযোগ কমিটিকেও দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এর আগে গত ৩০ অক্টোবর রাতে রাজশাহী নগরীর তালাইমারি এলাকার আমেনা ক্লিনিকে এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সহযোগী অধ্যাপকের ১৩ বছর বয়সী মেয়েকে যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠে।

অভিযুক্ত চিকিৎসক ডা. রাজু আহমেদ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রের উপ-প্রধান চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত। চাকরির পাশাপাশি বেসরকারি ক্লিনিকে রোগীদের চিকিৎসা দেন তিনি।

এ ঘটনায় গত ৩১ অক্টোবর নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় ‘নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে’ একটি মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগীর মা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত রসায়ন ও রসায়ন প্রকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সাবিনা ইয়াসমিন।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, বাদী সোমবার (৩০ অক্টোবর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তালাইমারী আমেনা ক্লিনিকের নীচতলায় বিবাদীর চেম্বারে তার মেয়ের দাঁতের চিকিৎসা করানোর জন্য যান।

একপর্যায়ে তার মোবাইল ফোনে কল আসলে তিনি কথা বলার জন্য বিবাদীর চেম্বার থেকে বাইরে বের হন। এমতাবস্থায় বিবাদী তার মেয়ের দাঁতের চিকিৎসা করাকালে ডেন্টাল চেয়ারে শোয়া অবস্থায় মেয়েটির শরীরের আপত্তিকর বিভিন্ন স্থানে স্পর্শ করে।

এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়, মেয়েটি এতে বিব্রত বোধ করলে বিবাদী মেয়েটির কোনোরুপ কথা না শুনে মেয়েটির স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়। এতে মেয়েটি ভয়ে চিৎকার করে ওঠে।

চিৎকার শুনে বাদি ভেতরে প্রবেশ করলে তার মেয়েকে কান্নারত অবস্থায় পান এবং তিনি তার মেয়ের মুখে ঘটনার বিষয়ে বিস্তারিত শোনেন।

এছাড়া এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর আবেদন করেছেন। এছাড়া চিকিৎসক রাজুকে স্থায়ীভাবে চাকরিচ্যুতের দাবিতে দফায় দফায় মানববন্ধন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীসহ কয়েকটি সংগঠন।