ঢাকা ০৪:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৮ এপ্রিল ২০২৪, ২৫ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ভোট নিয়ে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ইসির যে আলোচনা

বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে এই কথা বলেন সিইসি

রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন আহমেদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বে ৪ নির্বাচন কমিশনার। সাক্ষাৎ শেষে গণমাধ্যমকে সিইসি বলেছেন, রাষ্ট্রপতিকে আমরা ভোটের প্রস্তুতির বিষয়ে অবহিত করেছি। নির্বাচন নির্দিষ্ট সময়ে হবে, যার জন্য দ্রুতই আমাদের তফসিল ঘোষণা করতে হবে।

বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) দুপুর ১টায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে এই কথা বলেন সিইসি।

সাক্ষাৎকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনার আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন।

নির্বাচন কমিশনের একার পক্ষে সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব নয় উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেছেন, একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচনের জন্য প্রয়োজন নির্বাহী বিভাগসহ জনগণের সক্রিয় সহযোগিতা। রাজনৈতিক দলগুলোকে এ লক্ষ্যে এগিয়ে আসতে হবে।

সিইসি বলেছেন, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সব ধরনের সহযোগিতা করবেন বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি।

তিনি বলেন, সংবিধান বাধ্যবাধকতায় ২৯ জানুয়ারির আগেই নির্বাচন সম্পন্ন করতে হবে এবং এর জন্য নির্বাচন কমিশন সম্পন্ন প্রস্তুত। রাষ্ট্রপতিকে সার্বিক বিষয়ে জানানো হয়েছে।

তিনি জানান, সুন্দর ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন এরই মধ্যে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ করেছে। নির্বাচনকে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে নির্বাহী বিভাগসহ সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

সিইসি বলেন, রাষ্ট্রপতি বলেছেন- নির্বাচন হচ্ছে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় জনগণের মতামত প্রতিফলনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম। নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণ তাদের প্রতিনিধি নির্বাচন করেন এবং প্রতিনিধির মাধ্যমেই জনগণের প্রত্যাশা পূরণ হয়ে থাকে।

সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, গণতন্ত্র ও উন্নয়ন একসঙ্গে চলে। দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে হলে দেশের গণতান্ত্রিক ধারাকে অব্যাহত রাখতে হবে।

রাষ্ট্রপতি আশা করেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে সরকার নির্বাচন কমিশনকে সার্বিক সহযোগিতা দেবে। তিনি নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সাংবিধানিক রীতিনীতি ও বিধিবিধান অনুসরণপূর্বক কমিশনকে সাহসিকতা ও আন্তরিকতার সঙ্গে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান।

সাক্ষাতের সময় নির্বাচন কমিশনার এবং রাষ্ট্রপতির সচিবরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকাল পৌনে ১২টায় বঙ্গভবনে যান ইসির প্রতিনিধিরা।

আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে – ডেপুটি স্পীকার

ভোট নিয়ে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ইসির যে আলোচনা

আপডেট সময় ০৬:৩১:৪১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ নভেম্বর ২০২৩

রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন আহমেদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বে ৪ নির্বাচন কমিশনার। সাক্ষাৎ শেষে গণমাধ্যমকে সিইসি বলেছেন, রাষ্ট্রপতিকে আমরা ভোটের প্রস্তুতির বিষয়ে অবহিত করেছি। নির্বাচন নির্দিষ্ট সময়ে হবে, যার জন্য দ্রুতই আমাদের তফসিল ঘোষণা করতে হবে।

বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) দুপুর ১টায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে এই কথা বলেন সিইসি।

সাক্ষাৎকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনার আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন।

নির্বাচন কমিশনের একার পক্ষে সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব নয় উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেছেন, একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচনের জন্য প্রয়োজন নির্বাহী বিভাগসহ জনগণের সক্রিয় সহযোগিতা। রাজনৈতিক দলগুলোকে এ লক্ষ্যে এগিয়ে আসতে হবে।

সিইসি বলেছেন, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সব ধরনের সহযোগিতা করবেন বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি।

তিনি বলেন, সংবিধান বাধ্যবাধকতায় ২৯ জানুয়ারির আগেই নির্বাচন সম্পন্ন করতে হবে এবং এর জন্য নির্বাচন কমিশন সম্পন্ন প্রস্তুত। রাষ্ট্রপতিকে সার্বিক বিষয়ে জানানো হয়েছে।

তিনি জানান, সুন্দর ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন এরই মধ্যে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ করেছে। নির্বাচনকে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে নির্বাহী বিভাগসহ সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

সিইসি বলেন, রাষ্ট্রপতি বলেছেন- নির্বাচন হচ্ছে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় জনগণের মতামত প্রতিফলনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম। নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণ তাদের প্রতিনিধি নির্বাচন করেন এবং প্রতিনিধির মাধ্যমেই জনগণের প্রত্যাশা পূরণ হয়ে থাকে।

সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, গণতন্ত্র ও উন্নয়ন একসঙ্গে চলে। দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে হলে দেশের গণতান্ত্রিক ধারাকে অব্যাহত রাখতে হবে।

রাষ্ট্রপতি আশা করেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে সরকার নির্বাচন কমিশনকে সার্বিক সহযোগিতা দেবে। তিনি নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সাংবিধানিক রীতিনীতি ও বিধিবিধান অনুসরণপূর্বক কমিশনকে সাহসিকতা ও আন্তরিকতার সঙ্গে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান।

সাক্ষাতের সময় নির্বাচন কমিশনার এবং রাষ্ট্রপতির সচিবরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকাল পৌনে ১২টায় বঙ্গভবনে যান ইসির প্রতিনিধিরা।