ঢাকা ০৫:৫৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বোনের চাকরির ঘুষের টাকার জন্য স্ত্রীকে হত্যাচেষ্টা

ফাইল ছবি।

রাজশাহীর পুঠিয়ায় এক গৃহবধূকে রড দিয়ে পেটানোর পর শ্বাসরোধে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বুধবার (২৭ জুলাই) থানায় মামলা করতে গেলে ভুক্তভোগীর স্বজনদের কোর্টে যাওয়ার পরামর্শ দিয়ে ফিরিয়ে দেয় পুলিশ ।
বোনের সরকারি চাকরির জন্য দাবিকৃত ঘুষের ৫ লাখ টাকা না পেয়ে স্বামী এ হত্যাচেষ্টা চালিয়েছেন বলে ভুক্তভোগী হাছিনা বেগমের (৩০) অভিযোগ।
ভুক্তভোগী হাছিনা দুর্গাপুর উপজেলার ভবানীপুর এলাকার জাফর আলীর মেয়ে। আর অভিযুক্ত ব্যক্তি হলেন ঠিয়ার বড় কাচুপাড়া এলাকার মো. রাজিবের ছেলে শাহিন।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১১ সালে শাহিনের সাথে হাছিনার বিয়ে হয়। বিয়েতে ৪৫ হাজার টাকা যৌতুক নেন শাহিন। পরবর্তীতে বাসাবাড়ি নির্মাণের জন্য ১০ হাজার ইট ও টাকা দাবি করেন।
ভুক্তভোগী হাছিনা বেগম বলেন, স্থানীয় একটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আমার ননদের চাকরির কথা চলছে। চাকরির জন্য ৭ লাখ টাকা ঘুষ দিতে হবে। সেজন্য আমাকে বাবার বাসা থেকে ৫ লাখ টাকা নিয়ে আসতে বলে আমার স্বামী।
কৃষক বাবার কাছ থেকে এত টাকা ম্যানেজ করতে অপরাগতা প্রকাশ করায় বুধবার রাতে শুরু হয় নির্যাতন। বৃহস্পতিবার সারাদিন আমাকে বাসায় আটকে রাখে। পরে শুক্রবার লুকিয়ে স্বামীর বাড়ি থেকে পালিয়ে আসি। বর্তমানে দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন বলে তিনি জানান।
এ বিষয়ে হাছিনার বাবা জাফর আলী বলেন, যৌতুকের জন্য রাতের বেলা ঘরে উচ্চ আওয়াজে টেলিভিশন চালু করে মেয়েকে নির্যাতন করত শাহিন, যাতে বাইরের মানুষ মারধর ও মেয়ের কান্নার শব্দ শুনতে না পায়। সবশেষ গত ২০ জুলাই গভীর রাতে মেয়েকে রড ও লাঠি দিয়ে পেটায় সে। এরপর গলাটিপে শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা চালায়। তবে এব্যাপারে আপত্তি অভিযুক্ত শাহিন আলম। তিনি বলেন, যেসব অভিযোগ দিয়েছে সব অভিযোগ মিথ্যা।
হাছিনার বাবা আরো বলেন, এ ঘটনায় স্থানীয় সাবেক এক ইউপি মেম্বারকে নিয়ে বুধবার দুর্গাপুর থানায় যায়। তবে মামলা না নিয়ে আদালতে যেতে বলে পুলিশ।
জানতে চাইলে দুর্গাপুর থানার ওসি নাজমুল হক বলেন, থানায় মামলা নেয়া হয়নি, এমনটা হওয়ার কথা নয়। অপরাধ মামলার ক্রাইটেরিয়ায় পড়লে অবশ্যই মামলা নেয়া হবে বলে জানান ওই কর্মকর্তা।
জনপ্রিয় সংবাদ

৫৮২ কোটি টাকার সার আ’ত্ম’সা’ৎ মা’ম’লা’য় হাইকোর্টের জামিন স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত

বোনের চাকরির ঘুষের টাকার জন্য স্ত্রীকে হত্যাচেষ্টা

আপডেট সময় ০৭:১৯:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ জুলাই ২০২২
রাজশাহীর পুঠিয়ায় এক গৃহবধূকে রড দিয়ে পেটানোর পর শ্বাসরোধে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বুধবার (২৭ জুলাই) থানায় মামলা করতে গেলে ভুক্তভোগীর স্বজনদের কোর্টে যাওয়ার পরামর্শ দিয়ে ফিরিয়ে দেয় পুলিশ ।
বোনের সরকারি চাকরির জন্য দাবিকৃত ঘুষের ৫ লাখ টাকা না পেয়ে স্বামী এ হত্যাচেষ্টা চালিয়েছেন বলে ভুক্তভোগী হাছিনা বেগমের (৩০) অভিযোগ।
ভুক্তভোগী হাছিনা দুর্গাপুর উপজেলার ভবানীপুর এলাকার জাফর আলীর মেয়ে। আর অভিযুক্ত ব্যক্তি হলেন ঠিয়ার বড় কাচুপাড়া এলাকার মো. রাজিবের ছেলে শাহিন।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১১ সালে শাহিনের সাথে হাছিনার বিয়ে হয়। বিয়েতে ৪৫ হাজার টাকা যৌতুক নেন শাহিন। পরবর্তীতে বাসাবাড়ি নির্মাণের জন্য ১০ হাজার ইট ও টাকা দাবি করেন।
ভুক্তভোগী হাছিনা বেগম বলেন, স্থানীয় একটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আমার ননদের চাকরির কথা চলছে। চাকরির জন্য ৭ লাখ টাকা ঘুষ দিতে হবে। সেজন্য আমাকে বাবার বাসা থেকে ৫ লাখ টাকা নিয়ে আসতে বলে আমার স্বামী।
কৃষক বাবার কাছ থেকে এত টাকা ম্যানেজ করতে অপরাগতা প্রকাশ করায় বুধবার রাতে শুরু হয় নির্যাতন। বৃহস্পতিবার সারাদিন আমাকে বাসায় আটকে রাখে। পরে শুক্রবার লুকিয়ে স্বামীর বাড়ি থেকে পালিয়ে আসি। বর্তমানে দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন বলে তিনি জানান।
এ বিষয়ে হাছিনার বাবা জাফর আলী বলেন, যৌতুকের জন্য রাতের বেলা ঘরে উচ্চ আওয়াজে টেলিভিশন চালু করে মেয়েকে নির্যাতন করত শাহিন, যাতে বাইরের মানুষ মারধর ও মেয়ের কান্নার শব্দ শুনতে না পায়। সবশেষ গত ২০ জুলাই গভীর রাতে মেয়েকে রড ও লাঠি দিয়ে পেটায় সে। এরপর গলাটিপে শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা চালায়। তবে এব্যাপারে আপত্তি অভিযুক্ত শাহিন আলম। তিনি বলেন, যেসব অভিযোগ দিয়েছে সব অভিযোগ মিথ্যা।
হাছিনার বাবা আরো বলেন, এ ঘটনায় স্থানীয় সাবেক এক ইউপি মেম্বারকে নিয়ে বুধবার দুর্গাপুর থানায় যায়। তবে মামলা না নিয়ে আদালতে যেতে বলে পুলিশ।
জানতে চাইলে দুর্গাপুর থানার ওসি নাজমুল হক বলেন, থানায় মামলা নেয়া হয়নি, এমনটা হওয়ার কথা নয়। অপরাধ মামলার ক্রাইটেরিয়ায় পড়লে অবশ্যই মামলা নেয়া হবে বলে জানান ওই কর্মকর্তা।