ঢাকা ০৮:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাঘায় পূর্বশত্রুতার জের ধরে স্বামী-স্ত্রীকে লাঠিপেটা।

ফাইল ছবি।

রাজশাহীর বাঘায় জমি-জমা সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার   জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজন স্বামী-স্ত্রীকে লাঠিপেটা করে আহত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
সোমবার(২১ নভেম্বর) বিকালে উপজেলার দাদপুর (পলাশী ফতেপুর) এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের ছেলে ইমদাদুল জানান,সোমবার(২১ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে আমাদের ভোগ-দখলীয় জমিতে লাগানো মেহগনি গাছের পাতা কাটছিল আম্মা। এমন সময় জমি-জমা সংক্রান্ত পূর্বশত্রুতার জের ধরে একই এলাকার শহিদুল ইসলাম,হাশেম আলীসহ ৬\৭ জন লাঠি সোটা-বাটাম নিয়ে মেহগনি গাছে পাতা কাটতে নিষেধ করে। পাতা কাটা বন্ধ না করলে প্রতিপক্ষের লোকজন ছায়েরা খাতুন ও আঃ খালেককে লাথি,কিল-ঘুষি, লাঠিপেটা করে আহত করে। তাদের ডাকে-চিৎকারে আশ-পাশের লোকজন এগিয়ে আসলে প্রতিপক্ষের লোকজন পালিয়ে যায়। আহতদের গুরুতর অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তারা বাঘা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান,যে মেহগনি গাছের পাতা কাটছিলো সে গাছ গুলো আমাদের অংশের। তাই নিষেধ করলে ইমদাদুল,খালেক বলে তোর বাবার জমি নাকি? পরে বাঁশের লাঠি বের করে আমাদেরকে মারতে আসে।

এ ব্যাপারে বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন জানান, এ ধরনের একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

রাজশাহীতে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ শীর্ষক আলোচনা সভা

বাঘায় পূর্বশত্রুতার জের ধরে স্বামী-স্ত্রীকে লাঠিপেটা।

আপডেট সময় ০৭:৩০:০৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৩ নভেম্বর ২০২২

রাজশাহীর বাঘায় জমি-জমা সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার   জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজন স্বামী-স্ত্রীকে লাঠিপেটা করে আহত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
সোমবার(২১ নভেম্বর) বিকালে উপজেলার দাদপুর (পলাশী ফতেপুর) এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের ছেলে ইমদাদুল জানান,সোমবার(২১ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে আমাদের ভোগ-দখলীয় জমিতে লাগানো মেহগনি গাছের পাতা কাটছিল আম্মা। এমন সময় জমি-জমা সংক্রান্ত পূর্বশত্রুতার জের ধরে একই এলাকার শহিদুল ইসলাম,হাশেম আলীসহ ৬\৭ জন লাঠি সোটা-বাটাম নিয়ে মেহগনি গাছে পাতা কাটতে নিষেধ করে। পাতা কাটা বন্ধ না করলে প্রতিপক্ষের লোকজন ছায়েরা খাতুন ও আঃ খালেককে লাথি,কিল-ঘুষি, লাঠিপেটা করে আহত করে। তাদের ডাকে-চিৎকারে আশ-পাশের লোকজন এগিয়ে আসলে প্রতিপক্ষের লোকজন পালিয়ে যায়। আহতদের গুরুতর অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তারা বাঘা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান,যে মেহগনি গাছের পাতা কাটছিলো সে গাছ গুলো আমাদের অংশের। তাই নিষেধ করলে ইমদাদুল,খালেক বলে তোর বাবার জমি নাকি? পরে বাঁশের লাঠি বের করে আমাদেরকে মারতে আসে।

এ ব্যাপারে বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন জানান, এ ধরনের একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে।