ঢাকা ০৬:৫২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বনসাই প্রদর্শনী পরিদর্শন করলেন রাসিক মেয়র লিটন

ফাইল ছবি।

রাজশাহীতে বনসাই প্রদর্শনীর শেষ দিনে শনিবার রাতে পরিদর্শন করলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। নগরভবনের গ্রীনপ্লাজায় রাজশাহী বনসাই সোসাইটির উদ্যোগে তিনদিন ব্যাপী আয়োজিত বনসাই প্রদর্শনীর পরিদর্শন করেন মেয়র মহোদয়। আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে মেয়র বলেন, বনসাই শুধু শিল্প নয়, বাণিজ্যিকভাবেও এটি লাভবান একটি খাত। আগামীতে এই শিল্পের প্রসারে সংশ্লিষ্ট সকলকে সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন মেয়র। পরে সোসাইটির পক্ষ থেকে রাসিক মেয়র লিটনকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।
রাজশাহী বনসাই সোসাইটির উদ্যোগে গত বৃহস্পতিবার শুরু হয় এই বনসাই প্রদর্শনী। টবে বসানো আস্ত সবুজ গাছের খর্বাকৃতি রূপ। এ যেন শিল্পীর ছোয়ায় একেকটি নান্দনিক বৃক্ষের সমারোহ। প্রদশর্ণীতে তমাল, হিজল, বৈচি, বাগান বিলাসসহ বিলুপ্ত প্রজাতির অনেক বৃক্ষের দেখাও মিলেছে। প্রদর্শণীতে রয়েছে দেশি-বিদেশী প্রায় ৪৫ প্রজাতির প্রায় ৪শটি বনসাই বৃক্ষ।
২১তম এবারের প্রদর্শনীতে দেশি-বিদেশী প্রায় ৪৫ প্রজাতির বনসাইয়ের মধ্যে রয়েছে পাইকড়, কামিনী, জিলাপি, বট, তেতুল, শেওলা, বাংলা বট, চাইনিজ বট, ঝুমুর, ডুমুর, থাই চেরি, কদবেল প্রভৃতি প্রজাতির গাছের সমারোহ।
পরিদর্শনকালে রাজশাহী বনসাই সোসাইটির সভাপতি সৈয়দ মাহফুজ-ই-তৌহিদ টুটু, রাসিকের প্রধান প্রকৌশলী নুর ইসলাম তুষার, কোষাধ্যক্ষ ইসরার আলী, সদস্য রজব আলী, শাহ আলম, আল নেওয়াজ, মামুন, সুমন সিফাত, প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে – ডেপুটি স্পীকার

বনসাই প্রদর্শনী পরিদর্শন করলেন রাসিক মেয়র লিটন

আপডেট সময় ০৮:০২:৫৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২২

রাজশাহীতে বনসাই প্রদর্শনীর শেষ দিনে শনিবার রাতে পরিদর্শন করলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। নগরভবনের গ্রীনপ্লাজায় রাজশাহী বনসাই সোসাইটির উদ্যোগে তিনদিন ব্যাপী আয়োজিত বনসাই প্রদর্শনীর পরিদর্শন করেন মেয়র মহোদয়। আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে মেয়র বলেন, বনসাই শুধু শিল্প নয়, বাণিজ্যিকভাবেও এটি লাভবান একটি খাত। আগামীতে এই শিল্পের প্রসারে সংশ্লিষ্ট সকলকে সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন মেয়র। পরে সোসাইটির পক্ষ থেকে রাসিক মেয়র লিটনকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।
রাজশাহী বনসাই সোসাইটির উদ্যোগে গত বৃহস্পতিবার শুরু হয় এই বনসাই প্রদর্শনী। টবে বসানো আস্ত সবুজ গাছের খর্বাকৃতি রূপ। এ যেন শিল্পীর ছোয়ায় একেকটি নান্দনিক বৃক্ষের সমারোহ। প্রদশর্ণীতে তমাল, হিজল, বৈচি, বাগান বিলাসসহ বিলুপ্ত প্রজাতির অনেক বৃক্ষের দেখাও মিলেছে। প্রদর্শণীতে রয়েছে দেশি-বিদেশী প্রায় ৪৫ প্রজাতির প্রায় ৪শটি বনসাই বৃক্ষ।
২১তম এবারের প্রদর্শনীতে দেশি-বিদেশী প্রায় ৪৫ প্রজাতির বনসাইয়ের মধ্যে রয়েছে পাইকড়, কামিনী, জিলাপি, বট, তেতুল, শেওলা, বাংলা বট, চাইনিজ বট, ঝুমুর, ডুমুর, থাই চেরি, কদবেল প্রভৃতি প্রজাতির গাছের সমারোহ।
পরিদর্শনকালে রাজশাহী বনসাই সোসাইটির সভাপতি সৈয়দ মাহফুজ-ই-তৌহিদ টুটু, রাসিকের প্রধান প্রকৌশলী নুর ইসলাম তুষার, কোষাধ্যক্ষ ইসরার আলী, সদস্য রজব আলী, শাহ আলম, আল নেওয়াজ, মামুন, সুমন সিফাত, প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।