ঢাকা ০৫:৫৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধুকন্যার সরকার সবসময় মানুষের পাশে আছে – সমাজকল্যাণমন্ত্রী

বাগমারা উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগ ও যুব মহিলা লীগ নেত্রীবৃন্দের সঙ্গে মত বিনিময় সভা

বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার সরকার সবসময় মানুষের পাশে আছে বলে উল্লেখ করেছেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী ডা. দীপু মনি।
বুধবার (২০ মার্চ) দুপুরে রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার তাহেরপুরে শেখ রাসেল পৌর অডিটোরিয়ামে বাগমারা উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগ ও যুব মহিলা লীগ নেত্রীবৃন্দের সঙ্গে মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কর্মীরা বিপদে-আপদে সবসময় মানুষের পাশে আছে। কারণ- বঙ্গবন্ধু সারাজীবন জনমানুষের জন্য রাজনীতি করেছেন। তিনি দেশটাকে স্বাধীন করে দিয়েছেন। কীভাবে এদেশের মানুষের অর্থনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক মুক্তি মিলবে, প্রতিটি মানুষ ভালো থাকবে, সুখে থাকবে সে চেষ্টাই তিনি করে গেছেন।
বঙ্গবন্ধুর মতোই তাঁর কন্যা দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে কাজ করছেন জানিয়ে ডা. দীপু মনি বলেন, বাংলাদেশে হতদরিদ্রের হার বেশি ছিল, তা এখন অর্ধেকের বেশি নিচে নেমে এসেছে। দরিদ্রের হার ৪১ভাগ থেকে ১৮ভাগে এবং হতদরিদ্রের হার ২১ভাগ থেকে ৫.৬ভাগে নেমে এসেছে এটা সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার জন্য। কারণ তিনি একজন মায়ের মমতায় দেশটাকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। নানা প্রতিক‚লতা থাকা সত্তে¡ও তিনি দেশের মানুষের কল্যাণের জন্য কাজ করে চলেছেন। ছেলেমেয়েরা কীভাবে লেখাপড়া করবে, কারো অসুখ হলে কীভাবে চিকিৎসা পাবে, মাথা গোঁজার ঠাঁই না থাকলে কীভাবে মাথা গোঁজার ঠাঁই দেওয়া যায়, কীভাবে মানুষের পুষ্টিমান নিশ্চিত করা যায় সেজন্য তিনি প্রতিটি মুহুর্ত অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। তিনি শেখ হাসিনা সরকারের বিগত ১৫বছরের বিভিন্ন খাতের উন্নয়ন তুলে ধরেন।
সমাজকল্যাণমন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার সরকার মানেই হচ্ছে মানুষের সরকার, জনবান্ধব সরকার। প্রধানমন্ত্রী সারাদেশে প্রায় সকল প্রকার ভাতা চালু করেছেন। বিধবাভাতা, বয়স্কভাতা, মাতৃত্বকালীনভাতা, স্বামী পরিত্যক্তাভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা দেওয়া হচ্ছে। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী দেওয়া হচ্ছে। আমাদের আর্থিক সচ্ছলতা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সকল ভাতা ভোগীর সংখ্যা ও ভাতার হার বাড়ানো হচ্ছে। বিভিন্ন রিপোর্ট ও পরিসংখ্যানের ভিত্তিতে কোথাও কোথাও শতভাগ ভাতা দেওয়া হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি জানান, চাইলেই কোথাও ১০০ ভাগ মানুষকে ভাতা দেওয়া সম্ভব নয় ।
দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির প্রসঙ্গ তুলে ধরে তিনি বলেন, রোজার মধ্যে একটি অসাধু চক্র নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম বাড়িয়ে মানুষকে কষ্ট দিচ্ছে। মানুষ যাতে স্বস্তিতে থাকে সেজন্য সরকারের সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত আছে।এজন্য তিনি পণ্য কেনা-কাটায় সকলকে সজাগ থাকার পরামর্শ দেন।
এ সময় তিনি রাষ্ট্রীয় সম্পদের অপচয় হয় স্থানীয় পর্যায়ে এমন উদ্যোগ না নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে তিনি যে সকল উদ্যোগ বাস্তবায়নে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সম্পৃক্ততা থাকবে সেগুলো বাস্তবায়নে সহযোগিতার আশ্বাস দেন। এ সময়তিনিস্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রত্যেককে সৎ, অসাম্প্রদায়িক, মানবিক, পরমতসহিষ্ণু, সহমর্মী ও সমস্যা সমাধানে পারদর্শী মানুষ হয়ে গড়ে উঠতে উদ্বুদ্ধ করেন।
বাগমারা উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কহিনুর বানুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তৃতা করেন রাজশাহী৪ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ মোঃ আবুল কালাম আজাদ, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এ্যাড. ইব্রাহিম হোসেন, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এ্যাড. জাকিরুল ইসলাম সান্টু, তাহেরপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আবু বাক্কার মৃধা মুনসুর, রাজশাহী জেলার মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতিমোছাঃ মর্জিনা পারভিন প্রমুখ।
এর আগে মন্ত্রী অসহায়দের হাতে ইদ উপহার তুলে দেন।

আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে – ডেপুটি স্পীকার

বঙ্গবন্ধুকন্যার সরকার সবসময় মানুষের পাশে আছে – সমাজকল্যাণমন্ত্রী

আপডেট সময় ০৪:৩৮:৫২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০২৪

বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার সরকার সবসময় মানুষের পাশে আছে বলে উল্লেখ করেছেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী ডা. দীপু মনি।
বুধবার (২০ মার্চ) দুপুরে রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার তাহেরপুরে শেখ রাসেল পৌর অডিটোরিয়ামে বাগমারা উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগ ও যুব মহিলা লীগ নেত্রীবৃন্দের সঙ্গে মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কর্মীরা বিপদে-আপদে সবসময় মানুষের পাশে আছে। কারণ- বঙ্গবন্ধু সারাজীবন জনমানুষের জন্য রাজনীতি করেছেন। তিনি দেশটাকে স্বাধীন করে দিয়েছেন। কীভাবে এদেশের মানুষের অর্থনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক মুক্তি মিলবে, প্রতিটি মানুষ ভালো থাকবে, সুখে থাকবে সে চেষ্টাই তিনি করে গেছেন।
বঙ্গবন্ধুর মতোই তাঁর কন্যা দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে কাজ করছেন জানিয়ে ডা. দীপু মনি বলেন, বাংলাদেশে হতদরিদ্রের হার বেশি ছিল, তা এখন অর্ধেকের বেশি নিচে নেমে এসেছে। দরিদ্রের হার ৪১ভাগ থেকে ১৮ভাগে এবং হতদরিদ্রের হার ২১ভাগ থেকে ৫.৬ভাগে নেমে এসেছে এটা সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার জন্য। কারণ তিনি একজন মায়ের মমতায় দেশটাকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। নানা প্রতিক‚লতা থাকা সত্তে¡ও তিনি দেশের মানুষের কল্যাণের জন্য কাজ করে চলেছেন। ছেলেমেয়েরা কীভাবে লেখাপড়া করবে, কারো অসুখ হলে কীভাবে চিকিৎসা পাবে, মাথা গোঁজার ঠাঁই না থাকলে কীভাবে মাথা গোঁজার ঠাঁই দেওয়া যায়, কীভাবে মানুষের পুষ্টিমান নিশ্চিত করা যায় সেজন্য তিনি প্রতিটি মুহুর্ত অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। তিনি শেখ হাসিনা সরকারের বিগত ১৫বছরের বিভিন্ন খাতের উন্নয়ন তুলে ধরেন।
সমাজকল্যাণমন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার সরকার মানেই হচ্ছে মানুষের সরকার, জনবান্ধব সরকার। প্রধানমন্ত্রী সারাদেশে প্রায় সকল প্রকার ভাতা চালু করেছেন। বিধবাভাতা, বয়স্কভাতা, মাতৃত্বকালীনভাতা, স্বামী পরিত্যক্তাভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা দেওয়া হচ্ছে। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী দেওয়া হচ্ছে। আমাদের আর্থিক সচ্ছলতা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সকল ভাতা ভোগীর সংখ্যা ও ভাতার হার বাড়ানো হচ্ছে। বিভিন্ন রিপোর্ট ও পরিসংখ্যানের ভিত্তিতে কোথাও কোথাও শতভাগ ভাতা দেওয়া হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি জানান, চাইলেই কোথাও ১০০ ভাগ মানুষকে ভাতা দেওয়া সম্ভব নয় ।
দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির প্রসঙ্গ তুলে ধরে তিনি বলেন, রোজার মধ্যে একটি অসাধু চক্র নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম বাড়িয়ে মানুষকে কষ্ট দিচ্ছে। মানুষ যাতে স্বস্তিতে থাকে সেজন্য সরকারের সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত আছে।এজন্য তিনি পণ্য কেনা-কাটায় সকলকে সজাগ থাকার পরামর্শ দেন।
এ সময় তিনি রাষ্ট্রীয় সম্পদের অপচয় হয় স্থানীয় পর্যায়ে এমন উদ্যোগ না নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে তিনি যে সকল উদ্যোগ বাস্তবায়নে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সম্পৃক্ততা থাকবে সেগুলো বাস্তবায়নে সহযোগিতার আশ্বাস দেন। এ সময়তিনিস্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রত্যেককে সৎ, অসাম্প্রদায়িক, মানবিক, পরমতসহিষ্ণু, সহমর্মী ও সমস্যা সমাধানে পারদর্শী মানুষ হয়ে গড়ে উঠতে উদ্বুদ্ধ করেন।
বাগমারা উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কহিনুর বানুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তৃতা করেন রাজশাহী৪ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ মোঃ আবুল কালাম আজাদ, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এ্যাড. ইব্রাহিম হোসেন, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এ্যাড. জাকিরুল ইসলাম সান্টু, তাহেরপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আবু বাক্কার মৃধা মুনসুর, রাজশাহী জেলার মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতিমোছাঃ মর্জিনা পারভিন প্রমুখ।
এর আগে মন্ত্রী অসহায়দের হাতে ইদ উপহার তুলে দেন।