ঢাকা ১১:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঝিনাইগাতীতে শিশু ধর্ষণ মামলার ধর্ষক এবং ফয়সালের সহযোগী মোশারফকে ফাঁসি দাবীতে মানববন্ধন ।

শেরপুরের  ঝিনাইগাতীতে তৃতীয় শ্রেনিতে পড়ুয়া এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তারকৃত ফয়সালের ফাঁসি এবং সহযোগী মোমারফকে দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবীতে মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগী পরিবার ও এলাকাবাসী। ২৫ আগষ্ট শুক্রবার বিকেলে উপজেলার ফাকরাবাদ বাজারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে অংশ নেয় ওই এলাকার বিভিন্ন শ্রেনি পেশার ৫শতাধিক মানুষ। ধর্ষক ফয়সাল ঝিনাইগাতী সদরের আব্দুল সামাদ ওরফে নজরুলের ছেলে। সহযোগী মোশারফ উপজেলার নলকুড়া ইউনিয়নের পশ্চিম মানিককুড়া গ্রামের মৃত ফজল হকের ছেলে।

মানববন্ধন সুত্রে জানা গেছে,
গত ১৯ আগষ্ট শনিবার উপজেলার নলকুড়া ইউনিয়নের পশ্চিম মানিককুড়া গ্রামে ফয়সাল তার নানার বাড়ীতে বেড়াতে আসে। ঐ দিন বিকালে প্রতিবেশি মোহাম্মদ আলীর তৃতীয় শ্রেনিতে পড়ুয়া কন্যা ওই বাড়িতে খেলতে আসে। এসময় ফয়সাল তার খালাতো ভাই মোশারফ হোসেনের সহায়তায় ওই শিশুকে ঘরে ডেকে নিয়ে ধর্ষন করে। এসময় ভিকটিমের পরিবারকে ঘটনাটি গোপন রাখতে হুমকি দেয় স্থানীয় কয়েকজন সুবিধাভোগী। পরে আহত ভিকটিমকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে না নিয়ে স্থানীয় এক পল্লী চিকিৎসক দ্বারা ভিকটিমের ক্ষতস্থানে ৩টি সেলাই করে। পরবর্তীতে ঘটনাটি জানাজানি হলে ভিকটিমের পরিবার বিষয়টি থানা পুলিশ ও সাংবাদিকদেরকে জানালে ২২ আগষ্ট মঙ্গলবার রাতে ধর্ষিত শিশুকে উদ্ধার সহ ফয়সালকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এ ব্যাপারে ভিকটিমের বাবা মেহাম্মদ আলী বাদি হয়ে ধর্ষক ফয়সাল এবং সহযোগী মোশারফকে বিবাদী করে থানায় মামলা দায়ের করে।

এ ঘটনায় ফুঁসে উঠে পুরো গ্রামবাসী। এরই ফলশ্রুতিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় ইউপি সদস্য মমিন হোসেন, ইমান আলী মুন্সি ও তানজিৎ সহ অনেকে। বক্তারা ধর্ষক ফয়সালের ফাঁসি এবং সহযোগী মোশারফকে দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবী জানান। মানববন্ধনের আগে সমবেত জনতারা ফাকরাবাদ বাজারে বিক্ষোভ মিছিল করে।

আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

রাজশাহীর গোদাগাড়ী বালু মহলের অনিয়মবন্ধে ও দুর্নীতি বন্ধে ডিসি বরাবর অভিযোগ

ঝিনাইগাতীতে শিশু ধর্ষণ মামলার ধর্ষক এবং ফয়সালের সহযোগী মোশারফকে ফাঁসি দাবীতে মানববন্ধন ।

আপডেট সময় ০৬:৪৫:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ অগাস্ট ২০২৩

শেরপুরের  ঝিনাইগাতীতে তৃতীয় শ্রেনিতে পড়ুয়া এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তারকৃত ফয়সালের ফাঁসি এবং সহযোগী মোমারফকে দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবীতে মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগী পরিবার ও এলাকাবাসী। ২৫ আগষ্ট শুক্রবার বিকেলে উপজেলার ফাকরাবাদ বাজারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে অংশ নেয় ওই এলাকার বিভিন্ন শ্রেনি পেশার ৫শতাধিক মানুষ। ধর্ষক ফয়সাল ঝিনাইগাতী সদরের আব্দুল সামাদ ওরফে নজরুলের ছেলে। সহযোগী মোশারফ উপজেলার নলকুড়া ইউনিয়নের পশ্চিম মানিককুড়া গ্রামের মৃত ফজল হকের ছেলে।

মানববন্ধন সুত্রে জানা গেছে,
গত ১৯ আগষ্ট শনিবার উপজেলার নলকুড়া ইউনিয়নের পশ্চিম মানিককুড়া গ্রামে ফয়সাল তার নানার বাড়ীতে বেড়াতে আসে। ঐ দিন বিকালে প্রতিবেশি মোহাম্মদ আলীর তৃতীয় শ্রেনিতে পড়ুয়া কন্যা ওই বাড়িতে খেলতে আসে। এসময় ফয়সাল তার খালাতো ভাই মোশারফ হোসেনের সহায়তায় ওই শিশুকে ঘরে ডেকে নিয়ে ধর্ষন করে। এসময় ভিকটিমের পরিবারকে ঘটনাটি গোপন রাখতে হুমকি দেয় স্থানীয় কয়েকজন সুবিধাভোগী। পরে আহত ভিকটিমকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে না নিয়ে স্থানীয় এক পল্লী চিকিৎসক দ্বারা ভিকটিমের ক্ষতস্থানে ৩টি সেলাই করে। পরবর্তীতে ঘটনাটি জানাজানি হলে ভিকটিমের পরিবার বিষয়টি থানা পুলিশ ও সাংবাদিকদেরকে জানালে ২২ আগষ্ট মঙ্গলবার রাতে ধর্ষিত শিশুকে উদ্ধার সহ ফয়সালকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এ ব্যাপারে ভিকটিমের বাবা মেহাম্মদ আলী বাদি হয়ে ধর্ষক ফয়সাল এবং সহযোগী মোশারফকে বিবাদী করে থানায় মামলা দায়ের করে।

এ ঘটনায় ফুঁসে উঠে পুরো গ্রামবাসী। এরই ফলশ্রুতিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় ইউপি সদস্য মমিন হোসেন, ইমান আলী মুন্সি ও তানজিৎ সহ অনেকে। বক্তারা ধর্ষক ফয়সালের ফাঁসি এবং সহযোগী মোশারফকে দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবী জানান। মানববন্ধনের আগে সমবেত জনতারা ফাকরাবাদ বাজারে বিক্ষোভ মিছিল করে।