ঢাকা ০৮:২৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

জাতীয় ছাত্র সমাজের সভায় -সাদ এরশাদ এমপি সন্ত্রাসমুক্ত শিক্ষাঙ্গন ও দূর্ণীতিমুক্ত সমাজ গঠন করতে হবে

আজ ০৩ জুন, ২০২৩) স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য রাহ্গির আল মাহি সাদ এরশাদ-এমপি বলেছেন, আমাদের জাতীয় পার্টির ছাত্র সংগঠন জাতীয় ছাত্র সমাজের রাজনীতি হচ্ছে বিশ^বিদ্যালয় ও কলেজগুলোর ক্যাম্পাস ভিত্তিক। ছাত্র সংগঠনের নেতা কর্মীরা সন্ত্রাসমুক্ত শিক্ষাঙ্গন গড়ার জন্য অতন্দ্র প্রহরীর মতো কাজ করবে। আগামী দিনে দূর্ণীতিমুক্ত সমাজ গঠন করতে হবে। আজ গুলশানস্থ জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সকাল ১১ টায় ছাত্র সমাজের কেন্দ্রীয় আহবায়ক কমিটির এক সাধারণ সভায় তিনি প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। জাতীয় ছাত্র সমাজের কেন্দ্রীয় আহবায়ক ফকির আল মামুনের সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব আবু সাঈদ লিয়নের পরিচালনায় এই সভায় সাদ এরশাদ আরো বলেন, আমাদের ছাত্ররাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। ছাত্রদের সেভাবেই নিজেদের গড়ে তুলতে হবে।

বিরোধী দলীয় নেতার রাজনৈতিক সচিব ও সাবেক রাষ্ট্রদুত গোলাম মসীহ্ ছাত্রদের দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্যে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় বলেন, বর্তমানে ছাত্র ও যুবসমাজের মুল সমস্যাগুলো লিখিত আকারে আমাদের কাছে জমা দাও। বিশেষকরে কারিগরী শিক্ষা, প্রযুক্তিগত শিক্ষা, শিক্ষার শেষে চাকরির ব্যবস্থা, চিকিৎসা ও আবাসন সমস্যাগুলো তুলে ধরো। এ বিষয়গুলো আমরা আমাদের বিরোধী দলীয় নেতাকে দিয়ে পার্লামেন্টে তুলে ধরতে পারলে একটা ইতিবাচক কাজ হতে পারে। তিনি বলেন, আগামীতে দুর্ণীতিমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা করাই বড় চ্যালেঞ্জ, এই চ্যালেঞ্জ তোমাদেরকেই গ্রহণ করতে হবে। তিনি আরো বলেন, সন্ত্রাসমুক্ত শিক্ষাঙ্গন প্রতিষ্ঠার জন্য সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ছাত্র ব্রিগেড প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এটি ছিলো তাঁর একটি মহতি এবং যুগান্তকারী পদক্ষেপ। এরশাদের পদত্যাগের পর পরবর্তি সরকার এই প্রকল্প বন্ধ করে দেয়। প্রধান আলোচক হিসাবে জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্টপোষক ও বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদের মুখপাত্র কাজী মামুনুর রশীদ বলেছেন, আজকের ছাত্ররাই আগামী দিনের ভবিষ্যত। তাদের যোগ্য নাগরিক হিসাবে গড়ে তুলতে হবে। যোগ্য নাগরিক হিসাবে গড়ে তুলতে হলে শিক্ষার কোন বিকল্প নাই। নিয়ম-শৃঙ্খলা মেনে এবং ছাত্র শিক্ষক সুসম্পর্ক রেখে সংগঠনের বিকাশ ঘটাতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায়- সাবেক শিক্ষামন্ত্রী গোলাম সারোয়ার মিলন বলেন, আমাদের ছাত্র রাজনীতি ও আজকের ছাত্র রাজনীতি প্রেক্ষাপট পাল্টে গেছে। আধুনিক বিশে^র সাথে তাল মিলিয়ে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সাথে সামঞ্জস্য রেখে আমাদের ছাত্র সংগঠনকে শক্তিশালী করতে হবে। তিনি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ছাত্র-রাজনীতি ইতিহাস তুলে ধরে ছাত্রদের উ্েদ্দশ্যে বলেন, তোমাদের ছাত্র রাজনীতি হবে সংস্ত্রাসমুক্ত শিক্ষাঙ্গন, লেখাপড়া করা ও ছাত্র-শিক্ষক সুসম্পর্ক গড়ে তোলা। সভায় আরো বক্তব্য রাখেন -সাবেক এমপি- নূরুল ইসলাম মিলন, সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির যুগ্ম আহবায়ক খন্দকার মনিরুজ্জামান টিটু, জহির উদ্দিন জহির, মোহাম্মদ ই¯্রাফিল মিয়া। ছাত্রদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, খালিদ হাসান অনিক, অপু রায়হান আকাশ, বিশ^জিৎ রায়, আব্দুল সালাম, মমিন, তাহমিদ, সেলিম রেজা ও শাওন হাসান প্রমুখ।

আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

পিবিআই রাজশাহীতে মামলা তদন্ত ও প্রতিবেদন দাখিল ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত

জাতীয় ছাত্র সমাজের সভায় -সাদ এরশাদ এমপি সন্ত্রাসমুক্ত শিক্ষাঙ্গন ও দূর্ণীতিমুক্ত সমাজ গঠন করতে হবে

আপডেট সময় ০৬:৪৪:১৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৪ জুন ২০২৩

আজ ০৩ জুন, ২০২৩) স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য রাহ্গির আল মাহি সাদ এরশাদ-এমপি বলেছেন, আমাদের জাতীয় পার্টির ছাত্র সংগঠন জাতীয় ছাত্র সমাজের রাজনীতি হচ্ছে বিশ^বিদ্যালয় ও কলেজগুলোর ক্যাম্পাস ভিত্তিক। ছাত্র সংগঠনের নেতা কর্মীরা সন্ত্রাসমুক্ত শিক্ষাঙ্গন গড়ার জন্য অতন্দ্র প্রহরীর মতো কাজ করবে। আগামী দিনে দূর্ণীতিমুক্ত সমাজ গঠন করতে হবে। আজ গুলশানস্থ জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সকাল ১১ টায় ছাত্র সমাজের কেন্দ্রীয় আহবায়ক কমিটির এক সাধারণ সভায় তিনি প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। জাতীয় ছাত্র সমাজের কেন্দ্রীয় আহবায়ক ফকির আল মামুনের সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব আবু সাঈদ লিয়নের পরিচালনায় এই সভায় সাদ এরশাদ আরো বলেন, আমাদের ছাত্ররাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। ছাত্রদের সেভাবেই নিজেদের গড়ে তুলতে হবে।

বিরোধী দলীয় নেতার রাজনৈতিক সচিব ও সাবেক রাষ্ট্রদুত গোলাম মসীহ্ ছাত্রদের দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্যে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় বলেন, বর্তমানে ছাত্র ও যুবসমাজের মুল সমস্যাগুলো লিখিত আকারে আমাদের কাছে জমা দাও। বিশেষকরে কারিগরী শিক্ষা, প্রযুক্তিগত শিক্ষা, শিক্ষার শেষে চাকরির ব্যবস্থা, চিকিৎসা ও আবাসন সমস্যাগুলো তুলে ধরো। এ বিষয়গুলো আমরা আমাদের বিরোধী দলীয় নেতাকে দিয়ে পার্লামেন্টে তুলে ধরতে পারলে একটা ইতিবাচক কাজ হতে পারে। তিনি বলেন, আগামীতে দুর্ণীতিমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা করাই বড় চ্যালেঞ্জ, এই চ্যালেঞ্জ তোমাদেরকেই গ্রহণ করতে হবে। তিনি আরো বলেন, সন্ত্রাসমুক্ত শিক্ষাঙ্গন প্রতিষ্ঠার জন্য সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ছাত্র ব্রিগেড প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এটি ছিলো তাঁর একটি মহতি এবং যুগান্তকারী পদক্ষেপ। এরশাদের পদত্যাগের পর পরবর্তি সরকার এই প্রকল্প বন্ধ করে দেয়। প্রধান আলোচক হিসাবে জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্টপোষক ও বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদের মুখপাত্র কাজী মামুনুর রশীদ বলেছেন, আজকের ছাত্ররাই আগামী দিনের ভবিষ্যত। তাদের যোগ্য নাগরিক হিসাবে গড়ে তুলতে হবে। যোগ্য নাগরিক হিসাবে গড়ে তুলতে হলে শিক্ষার কোন বিকল্প নাই। নিয়ম-শৃঙ্খলা মেনে এবং ছাত্র শিক্ষক সুসম্পর্ক রেখে সংগঠনের বিকাশ ঘটাতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায়- সাবেক শিক্ষামন্ত্রী গোলাম সারোয়ার মিলন বলেন, আমাদের ছাত্র রাজনীতি ও আজকের ছাত্র রাজনীতি প্রেক্ষাপট পাল্টে গেছে। আধুনিক বিশে^র সাথে তাল মিলিয়ে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সাথে সামঞ্জস্য রেখে আমাদের ছাত্র সংগঠনকে শক্তিশালী করতে হবে। তিনি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ছাত্র-রাজনীতি ইতিহাস তুলে ধরে ছাত্রদের উ্েদ্দশ্যে বলেন, তোমাদের ছাত্র রাজনীতি হবে সংস্ত্রাসমুক্ত শিক্ষাঙ্গন, লেখাপড়া করা ও ছাত্র-শিক্ষক সুসম্পর্ক গড়ে তোলা। সভায় আরো বক্তব্য রাখেন -সাবেক এমপি- নূরুল ইসলাম মিলন, সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির যুগ্ম আহবায়ক খন্দকার মনিরুজ্জামান টিটু, জহির উদ্দিন জহির, মোহাম্মদ ই¯্রাফিল মিয়া। ছাত্রদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, খালিদ হাসান অনিক, অপু রায়হান আকাশ, বিশ^জিৎ রায়, আব্দুল সালাম, মমিন, তাহমিদ, সেলিম রেজা ও শাওন হাসান প্রমুখ।