ঢাকা ০৩:৪০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রাম বন্দরে মদভর্তি কন্টেইনার জব্দ মামলার ৩ আসামি রিমান্ডে।

ফাইল ছবি।

চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ভুয়া চালানের মাধ্যমে জালিয়াতি করে পাচার হওয়া দুই কনটেইনার বিদেশি মদসহ তিনজনকে গ্রেফতারের মামলায় তিন আসামিকে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সোমবার (২৫ জুলাই) বিকেলে নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম শামসাদ বেগমের আদালতে আসামিদের হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে শুনানি শেষে আদালত আসামি নাজমুল হোসেন ও সাইফুল ইসলামকে ৩ দিনের রিমান্ড মন্জুর করেন। অপর আসামি আহাদুল ইসলামের দুইদিনের রিমান্ড মন্জুর করা হয়।

এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ আদালত পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান। তিনি জানান, ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইন ও পেনাল কোডে ৪২৫ এর ৪ ধারায় র‌্যাব বাদী হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেছে। ওই মামলায় গ্রেফতারকৃত তিন আসামিকে ১০ দিন করে রিমান্ডের আবেদন জানালে আদালত দুই আসামির ৩ দিন করে এবং এক আসামির দুইদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গত ২৩ জুলাই (শনিবার) সকালে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের টিপরদী এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চেকপোস্টে তল্লাশি চালিয়ে দুই কনটেইনার থেকে ৩৬ হাজার ৮১৬ বোতল বিদেশি মদ জব্দ করে র‌্যাব। সুতা ও টেক্সটাইল মিলের মেশিনারিজ আমদানির আড়ালে ৪৭ কোটি টাকা মূল্যের বিদেশি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের এই মদের চালান আমদানি করা হয়।

এ ঘটনায় র‌্যাব ১১ এর উপপরিচালক মো. শাহাদাৎ হোসেন বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় মামলা দায়ের করেন।

পরে জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা জানায়, মামলার মূল আসামী মুন্সীগঞ্জের ষোলগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলাম ভুয়া কাগজপত্র তৈরি করে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে বিদেশ থেকে অবৈধভাবে মদ আমদানি করেন। র‌্যাব তার বাসায় তল্লাশি চালিয়ে নগদ ৯৮ লাখ টাকাসহ বিভিন্ন দেশের বিপুল অঙ্কের বিদেশি মুদ্রাসহ আজিজুল ইসলামের ছেলে আহাদুল ইসলামকে আটক করে।

জনপ্রিয় সংবাদ

৫৮২ কোটি টাকার সার আ’ত্ম’সা’ৎ মা’ম’লা’য় হাইকোর্টের জামিন স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত

চট্টগ্রাম বন্দরে মদভর্তি কন্টেইনার জব্দ মামলার ৩ আসামি রিমান্ডে।

আপডেট সময় ০৭:২৬:২৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ জুলাই ২০২২
চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ভুয়া চালানের মাধ্যমে জালিয়াতি করে পাচার হওয়া দুই কনটেইনার বিদেশি মদসহ তিনজনকে গ্রেফতারের মামলায় তিন আসামিকে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সোমবার (২৫ জুলাই) বিকেলে নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম শামসাদ বেগমের আদালতে আসামিদের হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে শুনানি শেষে আদালত আসামি নাজমুল হোসেন ও সাইফুল ইসলামকে ৩ দিনের রিমান্ড মন্জুর করেন। অপর আসামি আহাদুল ইসলামের দুইদিনের রিমান্ড মন্জুর করা হয়।

এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ আদালত পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান। তিনি জানান, ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইন ও পেনাল কোডে ৪২৫ এর ৪ ধারায় র‌্যাব বাদী হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেছে। ওই মামলায় গ্রেফতারকৃত তিন আসামিকে ১০ দিন করে রিমান্ডের আবেদন জানালে আদালত দুই আসামির ৩ দিন করে এবং এক আসামির দুইদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গত ২৩ জুলাই (শনিবার) সকালে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের টিপরদী এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চেকপোস্টে তল্লাশি চালিয়ে দুই কনটেইনার থেকে ৩৬ হাজার ৮১৬ বোতল বিদেশি মদ জব্দ করে র‌্যাব। সুতা ও টেক্সটাইল মিলের মেশিনারিজ আমদানির আড়ালে ৪৭ কোটি টাকা মূল্যের বিদেশি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের এই মদের চালান আমদানি করা হয়।

এ ঘটনায় র‌্যাব ১১ এর উপপরিচালক মো. শাহাদাৎ হোসেন বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় মামলা দায়ের করেন।

পরে জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা জানায়, মামলার মূল আসামী মুন্সীগঞ্জের ষোলগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলাম ভুয়া কাগজপত্র তৈরি করে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে বিদেশ থেকে অবৈধভাবে মদ আমদানি করেন। র‌্যাব তার বাসায় তল্লাশি চালিয়ে নগদ ৯৮ লাখ টাকাসহ বিভিন্ন দেশের বিপুল অঙ্কের বিদেশি মুদ্রাসহ আজিজুল ইসলামের ছেলে আহাদুল ইসলামকে আটক করে।