ঢাকা ০১:০৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
জন্ম নিবন্ধনের জন্য প্রত্যেক ইউনিয়ন পরিষদে ‘ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার’ আছে

গোদাগাড়ী মাটিকাটা ইউনিয়নের সচিবের বিরুদ্ধে সার্ভারের গোপন পাসওয়ার্ড বাইরে সরবরাহের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ফাইল ছবি

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার মাটিকাটা ইউনিয়নের সচিবের বিরুদ্ধে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের সার্ভারের গোপন পাসওয়ার্ড বাইরে সরবরাহের অভিযোগ পাওয়া গেছে। কম্পিউটারের দোকানে ওই পাসওয়ার্ড দিয়ে ব্যবসা করছেন জন্ম নিবন্ধনের সনদের। মাটিকাটা ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের নির্বাচিত সদস্য সেতাবুর রহমান এনিয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়, জন্ম নিবন্ধনের জন্য প্রত্যেক ইউনিয়ন পরিষদে ‘ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার’ আছে।

সেখান থেকে নাগরিকদের জন্ম নিবন্ধন লিপিবদ্ধ করা, সংশোধনের আবেদন করা হয়। ডিজিটাল সেন্টারের ব্যবহৃত সার্ভারের পাসওয়ার্ড বাইরের কোনো উদ্যোক্তার কাছে যাওয়ার কথা নয়।
কিন্তু ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সাব্বির হোসেন গোপনীয় এই পাসওয়ার্ড বাইরের কম্পিউটারের দোকানে দিয়ে রেখেছেন। সেখান থেকে নিয়মিত গোপনীয় পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে কম্পিউটার দোকানদাররা ব্যবসা করছেন।

যেকোনো সময় এই পাসওয়ার্ডের অপব্যবহার হতে পারে। ওয়ার্ডের নাগরিক নন, এমন ব্যক্তিরা সেখানে নিবন্ধিত হতে পারেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এছাড়াও চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত অফিসেও সার্ভারের পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা হচ্ছে।
ইউপি সদস্য সেতাবুর রহমান জানান, তিনি একাধিকবার বিষয়টি চেয়ারম্যান ও সচিবকে বলেছেন।

তারপরেও গোপন পাসওয়ার্ড বাইরে দিয়ে রেখেছেন। বিষয়টি স্পর্শকাতর হওয়ায় তিনি জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।
এ ব্যাপারে জানতে ইউনিয়ন সচিব সাব্বির হোসেনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দেওয়া হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। ম্যাসেজ পাঠালেও তিনি কোনো সাড়া দেননি।

জনপ্রিয় সংবাদ

মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে – ডেপুটি স্পীকার

জন্ম নিবন্ধনের জন্য প্রত্যেক ইউনিয়ন পরিষদে ‘ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার’ আছে

গোদাগাড়ী মাটিকাটা ইউনিয়নের সচিবের বিরুদ্ধে সার্ভারের গোপন পাসওয়ার্ড বাইরে সরবরাহের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আপডেট সময় ০৫:২৬:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৭ এপ্রিল ২০২২

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার মাটিকাটা ইউনিয়নের সচিবের বিরুদ্ধে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের সার্ভারের গোপন পাসওয়ার্ড বাইরে সরবরাহের অভিযোগ পাওয়া গেছে। কম্পিউটারের দোকানে ওই পাসওয়ার্ড দিয়ে ব্যবসা করছেন জন্ম নিবন্ধনের সনদের। মাটিকাটা ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের নির্বাচিত সদস্য সেতাবুর রহমান এনিয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়, জন্ম নিবন্ধনের জন্য প্রত্যেক ইউনিয়ন পরিষদে ‘ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার’ আছে।

সেখান থেকে নাগরিকদের জন্ম নিবন্ধন লিপিবদ্ধ করা, সংশোধনের আবেদন করা হয়। ডিজিটাল সেন্টারের ব্যবহৃত সার্ভারের পাসওয়ার্ড বাইরের কোনো উদ্যোক্তার কাছে যাওয়ার কথা নয়।
কিন্তু ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সাব্বির হোসেন গোপনীয় এই পাসওয়ার্ড বাইরের কম্পিউটারের দোকানে দিয়ে রেখেছেন। সেখান থেকে নিয়মিত গোপনীয় পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে কম্পিউটার দোকানদাররা ব্যবসা করছেন।

যেকোনো সময় এই পাসওয়ার্ডের অপব্যবহার হতে পারে। ওয়ার্ডের নাগরিক নন, এমন ব্যক্তিরা সেখানে নিবন্ধিত হতে পারেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এছাড়াও চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত অফিসেও সার্ভারের পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা হচ্ছে।
ইউপি সদস্য সেতাবুর রহমান জানান, তিনি একাধিকবার বিষয়টি চেয়ারম্যান ও সচিবকে বলেছেন।

তারপরেও গোপন পাসওয়ার্ড বাইরে দিয়ে রেখেছেন। বিষয়টি স্পর্শকাতর হওয়ায় তিনি জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।
এ ব্যাপারে জানতে ইউনিয়ন সচিব সাব্বির হোসেনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দেওয়া হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। ম্যাসেজ পাঠালেও তিনি কোনো সাড়া দেননি।