ঢাকা ১১:৪৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গোদাগাড়ী থানা পুলিশের অভিযানে পদ্মার চরে মিললো ২ কেজি ৫০০ গ্রাম হিরোইন।

ফাইল ছবি।

দেশ জুড়ে চলমান মাদক বিরোধী অভিযান চলাকালে তারই ধারাবাহিকতায়  গোদাগাড়ী মডেল থানা পুলিশ  অভিযান চালিয়ে  পদ্মার চর থেকে উদ্ধার করে বিপুল পরিমাণ হিরোইন।
রাজশাহী জেলা সদর থেকে ৩০ কিলোমিটার পশ্চিমে গোদাগাড়ী মডেল থানার অন্তর্ভুক্ত পৌরসভা  এলাকা  রেল বাজার ঘাটের উত্তরে  মোল্লা পাড়া গ্রামস্থ  পদ্মার চর  থেকে  ২ কেজি ৫০০ গ্রাম হিরোইন উদ্ধার করে গোদাগাড়ী মডেল থানা পুলিশ।
(১ আগষ্ট ২০২২ ইং)  রোজ সোমবার দুপুর ১ ঘটিকার সময়  সহকারী পুলিশ সুপার জনাব মোঃ আসাদুজ্জামান এর দিক নির্দেশনায় গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ   (ওসি) কামরুল ইসলাম এর নেতৃত্বে ইন্সপেক্টর তদন্ত  মনিরুল ইসলাম, এসআই (নি:) মোঃ আনোয়ার হোসেন, এস আই সুমন কবির, এএসআই রফিকুল ইসলাম ও সংগীয় ফোর্স এর সহযোগীতায় মাদক বিরোধী অভিযানীক দল  গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে গোদাগাড়ী রেল বাজার পদ্মার চর থেকে দুই জন  ব্যক্তি হলুদ রঙের দুইটি জারকিনে করে  মাদক নিয়ে উপরের দিকে আসছে ।  মাদক পাচারকারীরা  পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা মাদক ফেলে  দৌড়ে পালায়। পলাতক আসামি (১) মোঃ খোকন আলী ( ৪৩)  (২) মোঃ জিসান আলী (২১) উভয় সাং মাদার, পুর থানা গোদাগাড়ী।
সহকারী পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান বলেন
গোদাগাড়ী থানার আওতাভুক্ত এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। তাঁরা কেও ছাড় পাবে না। তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ পদক্ষেপ নিবে।
 তত্ত্ব সূত্রে জানা যায় গোদাগাড়ী মাদক রাজ্যের রাজা, সম্রাটরা  তাদের কামলা বা কর্মচারী দিয়ে আড়াল থেকে  মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রন করছে। মাদক সম্রাটরা থাকছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে।
 গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি কামরুল ইসলাম বলেন  মাদক ব্যবসায়ী যত প্রভাবশালীই হোক না কেন, মাদকের গড ফাদার ও মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে
তথ্যানুসন্ধানে জানা গেছে, গোদাগাড়ী মাদকের ডিলার এবং হোল সেলাররা মাঝে মধ্যে ধরা পড়লেও আইনের ফাঁক ফোকর দিয়ে বেরিয়ে আসে। শুরু করে আবার মাদক রাজ্যের নিয়ন্ত্রন।
এদের মধ্যে রয়েছে, গোদাগাড়ী থানার নদী পার চর এলাকার (১) মোঃ তরিকুল ইসলাম (২) মোঃ মাহবুব কানা সহ আরো অনেক নতুন মুখ অল্প সময়ে এরা প্রচুর টাকার মালিক ।
এ মর্মে  পলাতক আসামিদের বিরুদ্ধে গোদাগাড়ী মডেল থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে।
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে – ডেপুটি স্পীকার

গোদাগাড়ী থানা পুলিশের অভিযানে পদ্মার চরে মিললো ২ কেজি ৫০০ গ্রাম হিরোইন।

আপডেট সময় ০৬:৫৪:৪১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ অগাস্ট ২০২২
দেশ জুড়ে চলমান মাদক বিরোধী অভিযান চলাকালে তারই ধারাবাহিকতায়  গোদাগাড়ী মডেল থানা পুলিশ  অভিযান চালিয়ে  পদ্মার চর থেকে উদ্ধার করে বিপুল পরিমাণ হিরোইন।
রাজশাহী জেলা সদর থেকে ৩০ কিলোমিটার পশ্চিমে গোদাগাড়ী মডেল থানার অন্তর্ভুক্ত পৌরসভা  এলাকা  রেল বাজার ঘাটের উত্তরে  মোল্লা পাড়া গ্রামস্থ  পদ্মার চর  থেকে  ২ কেজি ৫০০ গ্রাম হিরোইন উদ্ধার করে গোদাগাড়ী মডেল থানা পুলিশ।
(১ আগষ্ট ২০২২ ইং)  রোজ সোমবার দুপুর ১ ঘটিকার সময়  সহকারী পুলিশ সুপার জনাব মোঃ আসাদুজ্জামান এর দিক নির্দেশনায় গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ   (ওসি) কামরুল ইসলাম এর নেতৃত্বে ইন্সপেক্টর তদন্ত  মনিরুল ইসলাম, এসআই (নি:) মোঃ আনোয়ার হোসেন, এস আই সুমন কবির, এএসআই রফিকুল ইসলাম ও সংগীয় ফোর্স এর সহযোগীতায় মাদক বিরোধী অভিযানীক দল  গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে গোদাগাড়ী রেল বাজার পদ্মার চর থেকে দুই জন  ব্যক্তি হলুদ রঙের দুইটি জারকিনে করে  মাদক নিয়ে উপরের দিকে আসছে ।  মাদক পাচারকারীরা  পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা মাদক ফেলে  দৌড়ে পালায়। পলাতক আসামি (১) মোঃ খোকন আলী ( ৪৩)  (২) মোঃ জিসান আলী (২১) উভয় সাং মাদার, পুর থানা গোদাগাড়ী।
সহকারী পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান বলেন
গোদাগাড়ী থানার আওতাভুক্ত এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। তাঁরা কেও ছাড় পাবে না। তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ পদক্ষেপ নিবে।
 তত্ত্ব সূত্রে জানা যায় গোদাগাড়ী মাদক রাজ্যের রাজা, সম্রাটরা  তাদের কামলা বা কর্মচারী দিয়ে আড়াল থেকে  মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রন করছে। মাদক সম্রাটরা থাকছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে।
 গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি কামরুল ইসলাম বলেন  মাদক ব্যবসায়ী যত প্রভাবশালীই হোক না কেন, মাদকের গড ফাদার ও মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে
তথ্যানুসন্ধানে জানা গেছে, গোদাগাড়ী মাদকের ডিলার এবং হোল সেলাররা মাঝে মধ্যে ধরা পড়লেও আইনের ফাঁক ফোকর দিয়ে বেরিয়ে আসে। শুরু করে আবার মাদক রাজ্যের নিয়ন্ত্রন।
এদের মধ্যে রয়েছে, গোদাগাড়ী থানার নদী পার চর এলাকার (১) মোঃ তরিকুল ইসলাম (২) মোঃ মাহবুব কানা সহ আরো অনেক নতুন মুখ অল্প সময়ে এরা প্রচুর টাকার মালিক ।
এ মর্মে  পলাতক আসামিদের বিরুদ্ধে গোদাগাড়ী মডেল থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে।