ঢাকা ০৭:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ মে ২০২৪, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কেশরহাটে যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার

মোহনপুর  উপজেলার কেশরহাট পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের রায়ঘাটী গ্রামের শিবনদীর ধারে ধানী জমির উপর মাহাবুর রহমান রাসেল (২৬) নামের এক যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। সে কেশরহাট বাজারের পরিচিত লন্ডী মামুনের একমাত্র ছেলে। শুক্রবার (২ জুন) রাতে সে বাড়ির বাহিরে যায়। অভিমান করে অতিরিক্ত ঘুমের ঔষধ সেবনে তার মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে বলে ধারনা করছেন স্থানীয়রা। পরদিন ৩ জুন শনিবার সকালে স্থানীয়রা শিবনদীর পাড়ে তার মৃতদেহ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। মৃত্যুর সুনির্দিষ্ট কারণ জানতে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাসেল ৭ বছর আগে বিয়ে করেন। বিবাহের পর থেকেই অসুখী তাদের দাম্পত্য জীবন। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে অধিকাংশ সময় কলহ-বিবাদ লেগেই থাকত। সম্প্রতি স্ত্রী রাসেলকে ছেড়ে বাবার বাড়ী চলে যায়। এরপর থেকে রাসেল বাবা-মা ও শশুর বাড়ির লোকদের সঙ্গে প্রায়শই রাগারাগি করত।
এ বিষয়ে মোহনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সেলিম বাদশাহ বলেন, মৃত্যুর সুনির্দিষ্ট কারণ নিশ্চিত হওয়া যায়নি। মৃতদেহের ময়না তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানা যাবে এবং আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

রাজশাহীতে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ শীর্ষক আলোচনা সভা

কেশরহাটে যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার

আপডেট সময় ০৬:৪০:৩১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৪ জুন ২০২৩
মোহনপুর  উপজেলার কেশরহাট পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের রায়ঘাটী গ্রামের শিবনদীর ধারে ধানী জমির উপর মাহাবুর রহমান রাসেল (২৬) নামের এক যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। সে কেশরহাট বাজারের পরিচিত লন্ডী মামুনের একমাত্র ছেলে। শুক্রবার (২ জুন) রাতে সে বাড়ির বাহিরে যায়। অভিমান করে অতিরিক্ত ঘুমের ঔষধ সেবনে তার মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে বলে ধারনা করছেন স্থানীয়রা। পরদিন ৩ জুন শনিবার সকালে স্থানীয়রা শিবনদীর পাড়ে তার মৃতদেহ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। মৃত্যুর সুনির্দিষ্ট কারণ জানতে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাসেল ৭ বছর আগে বিয়ে করেন। বিবাহের পর থেকেই অসুখী তাদের দাম্পত্য জীবন। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে অধিকাংশ সময় কলহ-বিবাদ লেগেই থাকত। সম্প্রতি স্ত্রী রাসেলকে ছেড়ে বাবার বাড়ী চলে যায়। এরপর থেকে রাসেল বাবা-মা ও শশুর বাড়ির লোকদের সঙ্গে প্রায়শই রাগারাগি করত।
এ বিষয়ে মোহনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সেলিম বাদশাহ বলেন, মৃত্যুর সুনির্দিষ্ট কারণ নিশ্চিত হওয়া যায়নি। মৃতদেহের ময়না তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানা যাবে এবং আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।