ঢাকা ০১:৪৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

উন্নয়নকর্মীদের সাথে মতবিনিময় সভায় রাসিক মেয়র লিটন ‘রাজশাহীকে পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তোলা হবে’

ফাইল ছবি।

রাজশাহী মহানগরীর বেসরকারি উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা/প্রতিষ্ঠানের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে শুভেচ্ছা ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টা হতে ৩টা পর্যন্ত নগর ভবনের সিটি হল সভাকক্ষে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাসিক মেয়র মাননীয় মেয়র মহোদয় বলেন, পদ্মা নদীর পানি পরিশোধন করে নগরীবাসীর জন্য সুপেয় পানির ব্যবস্থা করা হচ্ছে। পানি সরবরাহের পাইপ বাসানোর জন্য নগরীতে নির্মিত নতুন রাস্তাগুলো যেন খুঁড়তে না হয়, সেজন্য ইতোমধ্যে অনেক রাস্তার নিচে ওয়াসার পাইপ বসানো হয়েছে। আমি সব সময় সকলের সাথে সমন্বিত করে নগরীর উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন করি। এতে করে অর্থ অপচয় হয় না, নাগরিকদের ভোগান্তিও হয় না।

মেয়র আরো বলেন, পদ্মা নদীরধারে বিশাল চর রয়েছে। সেখানে ঘিরে রিভারসিটি গড়ে তোলার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। রিভার সিটি হলে সেখানে বিদেশী পর্যটক আসবে। আগামীতে রাজশাহীকে পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তোলা হবে।

রাজশাহীকে শিক্ষা নগরী রূপে গড়তে তুলার কথা উল্লেখ করে রাসিক মেয়র বলেন, রাজশাহীতে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় করতে চাই। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে কৃষি অনুষদ আছে। সেখানে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তুলতে সকল সুযোগ সুবিধা আছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে নির্বাচনের পরেই এটির বিষয়ে প্রস্তাবনা পেশ করবো।

মেয়র আরো বলেন, রাজশাহী পরিচ্ছন্ন ও সুন্দর নগরী। এই নগরীর ইলেকট্রিক পোলে ডিস লাইন ও ইন্টারনেট ক্যাবলের তারের জটলা বেমানান। ইতোমধ্যে ডিস ও ইন্টারনেট ব্যবসায়ীদের দফায় দফায় সর্তক করা হয়েছে। আগামীতে তাদের সাথে আবার বসবো। তারের এই জঞ্জাল সরানো হবে।

শিল্পায়ন ও কর্মসংস্থানের বিষয়ে রাসিক মেয়র বলেন, এবার লক্ষ্য রাজশাহীতে শিল্পায়ন ও কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা। রাজশাহীতে নৌবন্দর স্থাপন ও নৌরুট চালুর প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। প্রথম পর্যায়ে ভারতের মুর্শিদাবাদের ধূলিয়ান থেকে গোড়াগাড়ীর সুলতানগঞ্জ পর্যন্ত নৌরুট চালু হবে। এরপর রাজশাহী হয়ে আরিচা হয়ে ঢাকা পর্যন্ত নৌরুট চালু করতে চাই। এটি চালু হলে ব্যবসা-বাণিজ্য ও অথনীতি গতিশীল হবে। এছাড়া রাজশাহী থেকে কলকাতা পর্যন্ত সরাসরি ট্রেন, বাস চালু করা হবে। বিসিক-২ উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। প্লট বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে। নারী উদ্যোক্তাদের এখানে অগ্রাধিকার দেয়া হবে। শহরের আয়তন বৃদ্ধির কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামালের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, রাজশাহীর সভাপতি কল্পনা রায়, সচেতন সোসাইটির নির্বাহী পরিচালক হাসিনুল ইসলাম চুননু। সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন রাসিকের চীফ কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট অফিসার আজিজুর রহমান। সভায় বিভিন্ন এনজিও এর প্রতিনিধিবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

মিডিয়া তালিকাভুক্ত জাতীয় দৈনিক নববাণী পত্রিকার জন্য সকল জেলা উপজেলায় সংবাদ কর্মী আবশ্যকঃ- আগ্রহীরা আজই আবেদন করুন। মেইল: 24nababani@gmail.com
জনপ্রিয় সংবাদ

৫৮২ কোটি টাকার সার আ’ত্ম’সা’ৎ মা’ম’লা’য় হাইকোর্টের জামিন স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত

উন্নয়নকর্মীদের সাথে মতবিনিময় সভায় রাসিক মেয়র লিটন ‘রাজশাহীকে পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তোলা হবে’

আপডেট সময় ০৮:২৮:২৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ মে ২০২৩
রাজশাহী মহানগরীর বেসরকারি উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা/প্রতিষ্ঠানের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে শুভেচ্ছা ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টা হতে ৩টা পর্যন্ত নগর ভবনের সিটি হল সভাকক্ষে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাসিক মেয়র মাননীয় মেয়র মহোদয় বলেন, পদ্মা নদীর পানি পরিশোধন করে নগরীবাসীর জন্য সুপেয় পানির ব্যবস্থা করা হচ্ছে। পানি সরবরাহের পাইপ বাসানোর জন্য নগরীতে নির্মিত নতুন রাস্তাগুলো যেন খুঁড়তে না হয়, সেজন্য ইতোমধ্যে অনেক রাস্তার নিচে ওয়াসার পাইপ বসানো হয়েছে। আমি সব সময় সকলের সাথে সমন্বিত করে নগরীর উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন করি। এতে করে অর্থ অপচয় হয় না, নাগরিকদের ভোগান্তিও হয় না।

মেয়র আরো বলেন, পদ্মা নদীরধারে বিশাল চর রয়েছে। সেখানে ঘিরে রিভারসিটি গড়ে তোলার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। রিভার সিটি হলে সেখানে বিদেশী পর্যটক আসবে। আগামীতে রাজশাহীকে পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তোলা হবে।

রাজশাহীকে শিক্ষা নগরী রূপে গড়তে তুলার কথা উল্লেখ করে রাসিক মেয়র বলেন, রাজশাহীতে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় করতে চাই। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে কৃষি অনুষদ আছে। সেখানে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তুলতে সকল সুযোগ সুবিধা আছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে নির্বাচনের পরেই এটির বিষয়ে প্রস্তাবনা পেশ করবো।

মেয়র আরো বলেন, রাজশাহী পরিচ্ছন্ন ও সুন্দর নগরী। এই নগরীর ইলেকট্রিক পোলে ডিস লাইন ও ইন্টারনেট ক্যাবলের তারের জটলা বেমানান। ইতোমধ্যে ডিস ও ইন্টারনেট ব্যবসায়ীদের দফায় দফায় সর্তক করা হয়েছে। আগামীতে তাদের সাথে আবার বসবো। তারের এই জঞ্জাল সরানো হবে।

শিল্পায়ন ও কর্মসংস্থানের বিষয়ে রাসিক মেয়র বলেন, এবার লক্ষ্য রাজশাহীতে শিল্পায়ন ও কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করা। রাজশাহীতে নৌবন্দর স্থাপন ও নৌরুট চালুর প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। প্রথম পর্যায়ে ভারতের মুর্শিদাবাদের ধূলিয়ান থেকে গোড়াগাড়ীর সুলতানগঞ্জ পর্যন্ত নৌরুট চালু হবে। এরপর রাজশাহী হয়ে আরিচা হয়ে ঢাকা পর্যন্ত নৌরুট চালু করতে চাই। এটি চালু হলে ব্যবসা-বাণিজ্য ও অথনীতি গতিশীল হবে। এছাড়া রাজশাহী থেকে কলকাতা পর্যন্ত সরাসরি ট্রেন, বাস চালু করা হবে। বিসিক-২ উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। প্লট বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে। নারী উদ্যোক্তাদের এখানে অগ্রাধিকার দেয়া হবে। শহরের আয়তন বৃদ্ধির কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামালের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, রাজশাহীর সভাপতি কল্পনা রায়, সচেতন সোসাইটির নির্বাহী পরিচালক হাসিনুল ইসলাম চুননু। সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন রাসিকের চীফ কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট অফিসার আজিজুর রহমান। সভায় বিভিন্ন এনজিও এর প্রতিনিধিবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।