ঢাকা ০৫:১৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আরএমপিতে বিদায়ী পুলিশ কমিশনারের সাথে সাংবাদিকবৃন্দের সাক্ষাত

ফাইল ছবি।

রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের বিদায়ী পুলিশ কমিশনার মো: আবু কালাম সিদ্দিক মহোদয়ের সাথে সাংবাদিকবৃন্দের বিদায় সাক্ষাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।
আজ ২৬ ডিসেম্বর, ২০২২ সকাল ১১.০০ টায় রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ সদরদপ্তর কনফারেন্স রুমে সাংবাদিকদের সাথে পুলিশ কমিশনারের বিদায় সাক্ষাত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
অনুষ্ঠানে পুলিশ কমিশনার সাংবাদিকবৃন্দের উদ্দেশ্যে বলেন, গত ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রিষ্টাব্দে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার হিসেবে যোগদানের পর থেকে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশকে আধুনিক ও যুগোপযোগী করে গড়ে তুলতে এবং পুলিশি সেবাকে তিলোত্তমা মহানগর রাজশাহীবাসীর দোরগোড়ায় পৌঁছে দেবার জন্য নিরলসভাবে কাজ করেছি। এই কাজে আপনারা আপনাদের সুচিন্তিত মতামত দিয়ে আমাকে সহযোগিতা করেছেন। আপনাদের দাবীর পরিপ্রেক্ষিতেই রাজশাহীতে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে আরএমপি সাইবার ক্রাইম ইউনিট, যার সুফল পাচ্ছে এ অঞ্চলের জনগণ।
তিনি আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধে পুলিশের ভূমিকাকে অবিস্মরণীয় করতে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ লাইন্সে পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর, রাজশাহী স্থাপন করা হয়েছে। “মুক্তিযুদ্ধে রাজশাহী পুলিশ” নামে একটি বই প্রকাশিত হয়েছে, যা রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের ইতিহাসে মাইলফলক হয়ে থাকবে।
এসময় রাজশাহী’র সাংবাদিকবৃন্দ পুলিশ কমিশনারের নানামুখী কার্যক্রম নিয়ে তাদের অনুভুতি ব্যক্ত করেন। রাজশাহী মহানগরকে নিরাপদ নগরী হিসেবে গড়ে তোলার পাশাপাশি তাঁর মানবিক ও সামাজিক কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করেন। তাঁরা পুলিশ কমিশনারের ভবিষ্যত কর্মজীবনের ও ব্যক্তিজীবনের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেন।
পুলিশ কমিশনার তাঁর কর্মজীবনের প্রতিটি কর্মস্থলে যেভাবে সাফল্যস্মৃতি রেখেছেন, ঠিক সে আঙ্গিকে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশেও অনন্য নজির স্থাপন করেছেন। তাঁর সকল পুলিশি এবং মানবিক উদ্যোগসমূহ রাজশাহী মহানগরবাসীর নিকট চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে।
উক্ত অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অ্যাডমিন অ্যান্ড ফিন্যান্স) মো: ফারুক হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক অ্যান্ড ডিবি) জনাব সামসুন নাহার, বিপিএম, উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) মো: সাইফউদ্দীন শাহীন, উপ-পুলিশ কমিশনার (সিটিএসবি) জনাব মুহম্মদ আব্দুর রকিব পিপিএম, আরএমপি’র ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ-সহ রাজশাহী মহানগরীর টিভি, অনলাইন ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ, ক্যামেরা পার্সন এবং ফটো সাংবাদিকবৃন্দ ।
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে – ডেপুটি স্পীকার

আরএমপিতে বিদায়ী পুলিশ কমিশনারের সাথে সাংবাদিকবৃন্দের সাক্ষাত

আপডেট সময় ০৪:০৬:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২২
রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের বিদায়ী পুলিশ কমিশনার মো: আবু কালাম সিদ্দিক মহোদয়ের সাথে সাংবাদিকবৃন্দের বিদায় সাক্ষাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।
আজ ২৬ ডিসেম্বর, ২০২২ সকাল ১১.০০ টায় রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ সদরদপ্তর কনফারেন্স রুমে সাংবাদিকদের সাথে পুলিশ কমিশনারের বিদায় সাক্ষাত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
অনুষ্ঠানে পুলিশ কমিশনার সাংবাদিকবৃন্দের উদ্দেশ্যে বলেন, গত ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রিষ্টাব্দে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার হিসেবে যোগদানের পর থেকে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশকে আধুনিক ও যুগোপযোগী করে গড়ে তুলতে এবং পুলিশি সেবাকে তিলোত্তমা মহানগর রাজশাহীবাসীর দোরগোড়ায় পৌঁছে দেবার জন্য নিরলসভাবে কাজ করেছি। এই কাজে আপনারা আপনাদের সুচিন্তিত মতামত দিয়ে আমাকে সহযোগিতা করেছেন। আপনাদের দাবীর পরিপ্রেক্ষিতেই রাজশাহীতে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে আরএমপি সাইবার ক্রাইম ইউনিট, যার সুফল পাচ্ছে এ অঞ্চলের জনগণ।
তিনি আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধে পুলিশের ভূমিকাকে অবিস্মরণীয় করতে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ লাইন্সে পুলিশ মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর, রাজশাহী স্থাপন করা হয়েছে। “মুক্তিযুদ্ধে রাজশাহী পুলিশ” নামে একটি বই প্রকাশিত হয়েছে, যা রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের ইতিহাসে মাইলফলক হয়ে থাকবে।
এসময় রাজশাহী’র সাংবাদিকবৃন্দ পুলিশ কমিশনারের নানামুখী কার্যক্রম নিয়ে তাদের অনুভুতি ব্যক্ত করেন। রাজশাহী মহানগরকে নিরাপদ নগরী হিসেবে গড়ে তোলার পাশাপাশি তাঁর মানবিক ও সামাজিক কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করেন। তাঁরা পুলিশ কমিশনারের ভবিষ্যত কর্মজীবনের ও ব্যক্তিজীবনের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেন।
পুলিশ কমিশনার তাঁর কর্মজীবনের প্রতিটি কর্মস্থলে যেভাবে সাফল্যস্মৃতি রেখেছেন, ঠিক সে আঙ্গিকে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশেও অনন্য নজির স্থাপন করেছেন। তাঁর সকল পুলিশি এবং মানবিক উদ্যোগসমূহ রাজশাহী মহানগরবাসীর নিকট চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে।
উক্ত অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অ্যাডমিন অ্যান্ড ফিন্যান্স) মো: ফারুক হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক অ্যান্ড ডিবি) জনাব সামসুন নাহার, বিপিএম, উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) মো: সাইফউদ্দীন শাহীন, উপ-পুলিশ কমিশনার (সিটিএসবি) জনাব মুহম্মদ আব্দুর রকিব পিপিএম, আরএমপি’র ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ-সহ রাজশাহী মহানগরীর টিভি, অনলাইন ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ, ক্যামেরা পার্সন এবং ফটো সাংবাদিকবৃন্দ ।