ঢাকা ১০:৫৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ মে ২০২৪, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিশিষ্ট সাংবাদিক, গীতিকার, কলামিস্ট ও সাহিত্যিক

আবদুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুতে জাতীয় দৈনিক নববানী পরিবারের শোক প্রকাশ

নববানী নিউজ ডেস্ক

বিশিষ্ট সাংবাদিক, গীতিকার, কলামিস্ট ও সাহিত্যিক আবদুল গাফফার চৌধুরী ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নাল্লিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন)। বৃহস্পতিবার (১৯ মে) সকাল ৬টা ৪০ মিনিটের দিকে লন্ডনের একটি হাসপাতালে মারা যান তিনি। ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ কালজয়ী এ গানের স্রষ্টা বার্ধক্যজনিত নানা সমস্যায় ভুগছিলেন। ৮৮ বছর বয়স্ক বর্ষীয়ান লেখক ও সাংবাদিক আব্দুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছে জাতীয় দৈনিক নববানী পরিবার া
বৃহস্পতিবার প্রেসক্লাব সভাপতি সাইদুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. আসলাম-উদ-দৌলা এক যুক্ত বিবৃতিতে এ শোক প্রকাশ করেন। বিবৃতিতে রাজশাহী প্রেসক্লাব নেতারা বলেন, সাংবাদিকতার পাশাপাশি গল্প, উপন্যাস, স্মৃতিকথা, ছোটদের উপন্যাসও লিখেছেন আবদুল গাফফার চৌধুরী। জীবদ্দশায় বেশ সুনামের সাথে সাংবাদিকতা করেছেন তিনি। ১৯৫০ সালে ‘দৈনিক ইনসাফ’ পত্রিকায় সাংবাদিক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন।
১৯৫১ সালে ‘দৈনিক সংবাদ’ প্রকাশ হলে গাফফার চৌধুরী সেখানে অনুবাদকের কাজ নেন। তিনি স্বাধীনতা পদক, একুশে পদক, বাংলা একাডেমি পদক, ইউনেস্কো পদক, বঙ্গবন্ধু পুরস্কারসহ জাতীয় আন্তর্জাতিক অনেক পুরস্কার লাভ করেছেন। আবদুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুতে মহান এ পেশার অপূরণীয় ক্ষতি হলো। তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন জাতীয় দৈনিক নববানী পরিবার।

 

রাজশাহীতে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ শীর্ষক আলোচনা সভা

বিশিষ্ট সাংবাদিক, গীতিকার, কলামিস্ট ও সাহিত্যিক

আবদুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুতে জাতীয় দৈনিক নববানী পরিবারের শোক প্রকাশ

আপডেট সময় ০৭:০১:০২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২

বিশিষ্ট সাংবাদিক, গীতিকার, কলামিস্ট ও সাহিত্যিক আবদুল গাফফার চৌধুরী ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নাল্লিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন)। বৃহস্পতিবার (১৯ মে) সকাল ৬টা ৪০ মিনিটের দিকে লন্ডনের একটি হাসপাতালে মারা যান তিনি। ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ কালজয়ী এ গানের স্রষ্টা বার্ধক্যজনিত নানা সমস্যায় ভুগছিলেন। ৮৮ বছর বয়স্ক বর্ষীয়ান লেখক ও সাংবাদিক আব্দুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছে জাতীয় দৈনিক নববানী পরিবার া
বৃহস্পতিবার প্রেসক্লাব সভাপতি সাইদুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. আসলাম-উদ-দৌলা এক যুক্ত বিবৃতিতে এ শোক প্রকাশ করেন। বিবৃতিতে রাজশাহী প্রেসক্লাব নেতারা বলেন, সাংবাদিকতার পাশাপাশি গল্প, উপন্যাস, স্মৃতিকথা, ছোটদের উপন্যাসও লিখেছেন আবদুল গাফফার চৌধুরী। জীবদ্দশায় বেশ সুনামের সাথে সাংবাদিকতা করেছেন তিনি। ১৯৫০ সালে ‘দৈনিক ইনসাফ’ পত্রিকায় সাংবাদিক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন।
১৯৫১ সালে ‘দৈনিক সংবাদ’ প্রকাশ হলে গাফফার চৌধুরী সেখানে অনুবাদকের কাজ নেন। তিনি স্বাধীনতা পদক, একুশে পদক, বাংলা একাডেমি পদক, ইউনেস্কো পদক, বঙ্গবন্ধু পুরস্কারসহ জাতীয় আন্তর্জাতিক অনেক পুরস্কার লাভ করেছেন। আবদুল গাফফার চৌধুরীর মৃত্যুতে মহান এ পেশার অপূরণীয় ক্ষতি হলো। তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন জাতীয় দৈনিক নববানী পরিবার।